ঘড়ির পেছনেই রিয়ালের ব্যয় ৭ কোটি টাকা

0
26

স্পোর্টস ডেস্ক: দোর্দণ্ড প্রতাপে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে উঠেছে রিয়াল রিয়াল। সেখানে তাদের প্রতিপক্ষ লিভারপুল। আগামী ২৬ মে ইউক্রেনের কিয়েভে হবে দুদলের ফাইনালি লড়াই। যে যুদ্ধে পরিষ্কার ফেভারিট লস ব্লাঙ্কোজরা। অর্থাৎ শিরোপা উঠছে তাদের কেবিনেটেই!

অনুমান বাস্তবে ফললে, রেকর্ড ১৩বারের মতো মর্যাদার লিগটির শিরোপা ঘরে তুলবে রিয়াল। সেই সঙ্গে টানা তিনবার ইউরোপ সেরার টাইটেল জেতার রেকর্ডে ভাগ বসাবে জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা।

স্বপ্ন বাস্তবায়নে মরিয়া রোনাল্ডো-বেনজেমারা। এরই মধ্যে সুসংবাদ পেলেন তারা। পাচ্ছেন ১২তম শিরোপা জয়ের উপহার।

গেলোবার ফাইনালে ওঠার পর রিয়াল কর্তৃপক্ষ ঘোষণা দিয়েছিল, চ্যাম্পিয়ন হতে পারলে ক্লাবের প্রত্যেককে (খেলোয়াড়, কোচ, কর্মকর্তা, কর্মচারী) ‘রোলেক্স ব্র্যান্ডের’ঘড়ি উপহার দেয়া হবে। স্বপ্ন পূরণ হলে ৩০টি ঘড়ি কিনব।

২০১৬-১৭ মৌসুমে জুভেন্টাসকে হারিয়ে শিরোপা ঘরে তোলে রিয়াল। এরপর ১১ মাস অতিক্রান্ত হলেও সেই ঘড়ি কেনা হয়নি। অবশেষে প্রতিশ্রুত উপহারসামগ্রী কিনেছে ক্লাবটি।

স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, রোলেক্স এর কাছ থেকে ৩০টি ঘড়ি কিনেছে রিয়াল। এর পেছনে ব্যয় হয়েছে ৭ লাখ ২০ হাজার ইউরো। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় সাড়ে ৭ কোটি টাকা। ‘রোলেক্স সাবমেরিনার্স ডেট ওয়াচ’ মডেলের ঘড়ি পাচ্ছেন সবাই। এটি পছন্দ করেছেন দলীয় অধিনায়ক সার্জিও রামোস।

এবার চ্যাম্পিয়ন হলেও পুরস্কার পাবেন রোনাল্ডোরা। জেতা ৬০ মিলিয়ন প্রাইজমানি থেকে প্রত্যেক খেলোয়াড় পাবেন ৬ লাখ ইউরো করে। পাশাপাশি আরও একটি করে উপহার পাবেন তারা।

উল্লেখ্য, চ্যাম্পিয়নস লিগজয়ী দল পুরস্কার হিসেবে পান ৬০ মিলিয়ন ইউরো। আর লা লিগা চ্যাম্পিয়ন বগলদাবা করেন ১০ মিলিয়ন ইউরো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here