গোপন বৈঠকে স্মিথদের সিদ্ধান্ত, চুক্তি না হলে বাংলাদেশ সফর বয়কট

0
40

banvsaus1438552299_52935_1500760621_53142_1500930045স্পোর্টস ডেস্ক: বেতন-ভাতা নিয়ে বোর্ডের সঙ্গে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের যে ঝামেলা চলছে, সেই সংকটের স্থায়ী কোনো সমাধান না এলে আগামী মাসে বাংলাদেশ সফরে আসবে না অস্ট্রেলিয়া। আগামী তিন সপ্তাহের মধ্যে নতুন সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত না হলে এক গোপন বৈঠকে বাংলাদেশ সফর বয়কটের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার সিনিয়র ক্রিকেটাররা।

সোমবার সকালে সিডনিতে হয়েছে এ গোপন বৈঠক।

‘দ্য অস্ট্রেলিয়ান’ পত্রিকা তাদের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ, সহ-অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারসহ দলের সিনিয়র ক্রিকেটাররা কাল খেলোয়াড়দের সংগঠন এসিএ’র প্রধান নির্বাহী অ্যালিস্টার নিকোলসনের সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠকে বসেছিলেন। সেখানেই তারা নতুন কেন্দ্রীয় চুক্তি না হলে বাংলাদেশ সফর বয়কটের ব্যাপারে একমত হয়েছেন। সব খেলোয়াড়ই নাকি সফর বয়কটের পক্ষে ভোট দিয়েছেন।

ওদিকে এসিএ’র সঙ্গে চলমান আলোচনা সফলের ইঙ্গিত দিচ্ছে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ড (সিএ)। আগের শান্তি প্রক্রিয়া ভেস্তে যাওয়ার পর সমস্যার সমাধানে রোববার নতুন করে বৈঠকে বসেছে দু’পক্ষ। প্রথমদিন চার ঘণ্টার ম্যারাথন বৈঠক শেষে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) জানিয়েছে, নতুন চুক্তি নিয়ে ফলপ্রসূ আলোচনার দিকে এগোচ্ছে তারা।

আলোচনার অগ্রগতি জানতেই মূলত সোমবার একত্রিত হয়েছিলেন বাংলাদেশ সফরের টেস্ট দলে ডাক পাওয়া ক্রিকেটাররা। এসিএ’র পক্ষ থেকে প্রায় দুই ঘণ্টা ধরে সব জানানো হয় তাদের।

দু’পক্ষই ছাড় দিয়ে শান্তি আলোচনা এগিয়ে নেয়ার কথা জানালেও চুক্তি না হওয়া পর্যন্ত নির্ভার হতে পারছেন না ক্রিকেটাররা। এ জন্যই নিজেরা আলোচনা করে বাংলাদেশ সফরের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়ে রাখলেন।

দুই টেস্টের সিরিজ খেলতে ১৮ আগস্ট বাংলাদেশে আসার কথা অস্ট্রেলিয়া দলের। এ সফর সামনে রেখে ১০ আগস্ট ডারউইনে শুরু হবে ট্রেনিং ক্যাম্প।

সোমবারের গোপন বৈঠকে স্মিথরা যথাসময়ে ক্যাম্পে যোগ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। কিন্তু বোর্ডের সঙ্গে সমঝোতা না হলে বাংলাদেশের বিমান ধরবেন না তারা।

এসিএ জানিয়েছে, ক্রিকেটাররা বাংলাদেশ সফরে যেতে উদগ্রীব। কিন্তু সেজন্য তাদের ন্যায্য দাবি মেনে নিতে হবে বোর্ডকে।

আগের চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় গত ১ জুলাই থেকে বেকার হয়ে গেছেন অস্ট্রেলিয়ার ২৩০ জন ক্রিকেটার। স্মিথদের দাবি, নতুন চুক্তিতে ২৩০ জনকেই আগের মতো বোর্ডের লভ্যাংশ দিতে হবে। কিন্তু সিএ শুধু শীর্ষ ১৭ জন ক্রিকেটারকে লভ্যাংশ দিতে চায়।

এ ইস্যুতে এখনও কোনো সমঝোতা হয়নি। শান্তি ফেরাতে তৃণমূল পর্যায়ের ক্রিকেটের জন্য নিজেদের অংশ থেকে তিন কোটি অস্ট্রেলীয় ডলার দেয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন ক্রিকেটাররা। সংকটের সমাধানের জন্য এখন সিএকেও এ ধরনের ছাড় দিতে হবে। ওয়েবসাইট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here