গোপনে রাশিয়ার সঙ্গে যোগ ট্রাম্পের?‌

0
127

160560_149আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ঠান্ডা যুদ্ধে সময় থেকেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং রাশিয়ার শীতল সম্পর্কের কথা সর্বজনবিদিত। মার্কিন মুলুকের রিপাবলিকানদের প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের হাত ধরে কি সেই সম্পর্কের নতুন মোড় আসতে পারে?‌ এমনই দাবি আমেরিকার হ্যাকার টি লিভেজের।

তিনি বলছেন, মস্কোর একাধিক ব্যাঙ্কের সঙ্গে গোপন ইন্টারনেট সার্ভার দিয়ে যুক্ত ট্রাম্পের বেশ কয়েকটি সংস্থা। গোপন নজরাদারি চালিয়ে এই তথ্য উদ্ধার করেছেন তিনি। তবে সেই সার্ভারের সুরক্ষাবলয় এতটাই মজবুত, যে নজরদারি শুরু করার কিছুক্ষণেই মধ্যেই ‘‌অফলাইন’‌ হয়ে যায় সার্ভারটি। কয়েকদিন আগেই পেন্টাগন সূত্রে দাবি করা হয়েছিল যে, রাশিয়ার হ্যাকাররা নাকি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষাবিষয়ক তথ্য চুরি করার চেষ্টা করছিল। সেখানে কেন ট্রাম্প গোপনে রাশিয়ার সঙ্গে সন্দেহজনক যোগাযোগ রাখছেন, সেটা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন লিভেজ এবং তার সহকর্মীরা।

লিভেজ বলেছেন, ‘‌ট্রাম্প একজন ব্যবসায়ী। পেশার প্রয়োজনে তাঁকে বিদেশের ব্যাঙ্কের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে হতেই পারে। কিন্তু তার জন্য গোপন সংকেতের আদান প্রদান করলে বিষয়টা সন্দেহজনক রূপ নিতে বাধ্য।’‌

বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই মুখ খুলেছেন ডেমোক্র্যাটদের প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিলারি ক্লিন্টন। টুইটারে তিনি বলেছেন, ‘‌রাশিয়ার সঙ্গে গোপনে যোগাযোগ রাখার বিষয়টি অত্যন্ত গুরুতর এবং উদ্বেগজনক। এবার ট্রাম্পের উচিত জবাবদিহি করা।’‌ যদিও এই বিষয়ে একই সুর রাশিয়ার ব্যাঙ্ক এবং ট্রাম্পের সংস্থার। দুপক্ষেরই জবাব, তারা এ বিষয়ে কিছুই জানে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here