গুলশানের হামলায় পাকিস্তানের হাত দেখছেন প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা!

0
146

13521858_829304870503065_4273365891289397845_nস্টাফ করেসপন্ডেন্ট: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ.টি ইমাম গুলশানের আর্টিজান রেস্টুরেন্টে হামলার ঘটনায় পাকিস্তানের সংযোগের আশঙ্কা করছেন।

সে দেশের সামরিক গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই এ ঘটনায় জড়িত থাকতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন তিনি। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এই শঙ্কার কথা জানান তিনি।

এনডিটিভিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, যে কায়দায় জিম্মিদের হত্যা করা হয়েছে তার মধ্য দিয়ে বোঝা যায় এক্ষেত্রে নিষিদ্ধ ঘোষিত স্থানীয় জঙ্গি সংগঠন জামায়াতুল মুজাহিদীনের ভূমিকা রয়েছে। সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘পাকিস্তানের আইএসআই এবং জামায়াতুল মুজাহিদীনের মধ্যকার সংশ্লিষ্টতার কথা ভালো করেই জানা আছে। তারা বর্তমান সরকারকে উৎখাত করতে চায়। জামায়াতুল মুজাহিদীন এবং স্থানীয় সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলো যেভাবে হত্যাকাণ্ড চালিয়ে থাকে সেরকম করেই আর্টিজানের জিম্মিদের হত্যা করা হয়েছে।’

উল্লেখ্য, একদিন আগেই রাজধানী ঢাকার গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারি নামের রেস্তোরাঁয় জঙ্গিরা শুক্রবার রাতের বিভিন্ন সময় তিন বাংলাদেশিসহ ২০ জন জিম্মিকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে হত্যা করে। নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে ১৭ জন বিদেশি নাগরিক। এর মধ্যে জাপান সরকার তাদের সাত নাগরিকের মৃত্যুর কথা নিশ্চিত করেছে। ইতালির নাগরিক নিহত হয়েছেন নয়জন। একজন ভারতীয় নাগরিক।

শুক্রবার রাতে অভিযান চালাতে গিয়ে মারা গেছেন পুলিশের দুই কর্মকর্তা। আর গতকাল শনিবার সকালে অভিযানে মারা গেছে ছয় সন্ত্রাসী। গ্রেপ্তার হয়েছে একজন। অভিযানে একজন জাপানি, দুজন শ্রীলঙ্কানসহ ১৩ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। এই হত্যার দায় প্রথম থেকে আইএস দাবি করে আসছে।

শনিবার সকালে রেস্টুরেন্টটিতে কমান্ডো অভিযান চালানো হয়। সেনাবাহিনীর মিলিটারি অপারেশন্সের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাঈম আশফাক চৌধুরী প্রেস ব্রিফিয়েং জানান, রাজধানীর গুলশানে হলি আর্টিজান রেস্টুরেন্টে পরিচালিত ‘অপারেশন থান্ডার বোল্ট’ এর সময় ২০টি মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৭ জন বিদেশি ও তিন জন বাংলাদেশি বলে জানানো হয়। এছাড়া অভিযানে ছয় হামলাকারী নিহত হয়েছে বলেও দাবি করা হয়।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছেন, হামলাকারীরা সবাই শিক্ষিত এবং তরুণ বয়সী। তাদের মধ্যে বেশ কয়েকজন ধনী পরিবারের সন্তান বলেও জানিয়েছেন তিনি।