ক্ষেপেছেন শাকিব

0
140

6বিনোদন ডেস্ক: দেশের সিনেমা বাজারে ভারতীয় তথা কলকাতার ছবি ঢুকে পড়ছে। এ নিয়ে বেজায় তোলপাড় ঢাকার ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে। আড়ালে থাকেননি দেশের এক নাম্বার নায়ক শাকিব খানও। চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি হওয়ার কারণেই তাকে প্রতিবাদে শামিল হতে হয়েছে।

আজ থেকে ‘কেলোর কীর্তি’ নামে কলকাতার একটি ছবি বাংলাদেশে প্রদর্শিত হওয়ার কথা ছিল। আদালতের নিষেধাজ্ঞার কারণে সেটা স্থগিত হলেও ২০ জুলাই বাংলাদেশে ভারতীয় ছবি প্রদর্শনীর বিরুদ্ধে আন্দোলনের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করতে আয়োজিত মানববন্ধনে হাজির হন তিনি।

সেখানে উপস্থিত বক্তব্যে শাকিব খান বলেন, ‘বিনিময়ের নামে আমাদের অসম প্রতিযোগিতার সামনে দাঁড় করিয়ে দেয়া হচ্ছে। কলকাতার নতুন একটি ছবি আমাদের এখানে মুক্তি দিচ্ছে। আর কলকাতার ব্যবসায়ীরা আমাদের দেশের পুরনো একটি ছবি নিয়ে যাচ্ছেন। প্রত্যন্ত অঞ্চলে তারা দু-একটা হলে আমাদের ছবি চালাচ্ছেন। তাদের ছবি আমাদের দেশের অধিকাংশ সিনেমা হলে মুক্তি দিয়ে টাকা নিয়ে যাচ্ছেন। আমরা এর আগে তথ্যমন্ত্রী, তথ্যসচিবের সঙ্গে একাধিকবার বসেছি। তারা আমাদের আশ্বস্ত করেছেন। কিন্তু কোনো কিছু পরোয়া না করে এরই মধ্যে ওদের ছবি আমাদের দেশে চলে এসেছে। আমরা চাই এর স্থায়ী সমাধান। যেখানে কলকাতা পাঁচ কোটি টাকার ছবি বানায়, সেখানে আমাদের দেশের ৫০ লাখ টাকার ছবি প্রতিযোগিতায় নামলে সেটি অসম প্রতিযোগিতা হবে।’

কলকাতার ছবির বিরুদ্ধে শাকিবের এমন প্রকাশ্য প্রতিবাদে অনেকে তার প্রশংসা করেছেন। কিন্তু পাশাপাশি তার সমালোচনা করতেও ছাড়েননি। গেল ঈদে মুক্তিপ্রাপ্ত যৌথ প্রযোজনার ছবি ‘শিকারি’তে ব্যাপক অনিয়ম রয়েছে। ছবিটি বাংলাদেশে মুক্তি পেলেও কলকাতায় মুক্তি দেয়া হয়নি। এমন অনিয়ম করা সত্ত্বেও শাকিব খান বিন্দু পরিমাণ মুখ খোলেননি। কারণ এ ছবিতে তার স্বার্থ ছিল। এ ছবির মাধ্যমেও ব্যাপক অংকের টাকা ভারত নিয়ে গেছে। তখন কিছুই বলেননি। অন্যদিকে কেলোর কীর্তিতে শাকিবের কোনো স্বার্থ নেই বলেই প্রকাশ্যে গলা ফাটিয়ে প্রতিবাদ করছেন তিনি। এ রকম প্রতিবাদের মতোই ‘যৌথ প্রযোজনা’র নামে ‘যৌথ প্রতারণা’র বিরুদ্ধেও তার প্রতিবাদ করা উচিত বলেই মন্তব্য করেছেন সিনেপ্রেমীরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here