ক্যানসাস অঙ্গরাজ্য ডেমক্র্যাটিক পার্টির সেক্রেটারি হলেন রেহান রেজা

0
134

নিউইয়র্ক থেকে : ক্যানসাস অঙ্গরাজ্য ডেমক্র্যাটিক পার্টির নির্বাহী কমিটির সেক্রেটারি হলেন বাংলাদেশী-আমেরিকান রেহান রেজা (জবযধহ জবুধ)। এই সংগঠনের চেয়ারপার্সন জন গিবসন। ডেমক্র্যাটিক পার্টির কোন অঙ্গরাজ্য শাখার সেক্রেটারি পদে রেহান রেজাই হলেন প্রথম বাংলাদেশী। নব্বইয়ের দশকে যুক্তরাষ্ট্রে আসার পর ক্যানসাসের টপেকা সিটিতে বসবাসরত রেহান রেজা দীর্ঘ ২৫ বছর এই পার্টির বিভিন্ন পদে সুষ্ঠুভাবে দায়িত্ব পালনের সিড়ি বেয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পদে নির্বাচিত হলেন। নারায়নগঞ্জের সন্তান রেহান রেজা এর আগে উত্তর আমেরিকায় বসবাসরত বাংলাদেশীদের মহা-মিলনমেলার আয়োজনকারি ‘ফোবানা’র (ফেডারেশন অব বাংলাদেশী এসোসিয়েশন্স ইন নর্থ আমেরিকা) চেয়ারম্যানের দায়িত্বও পালন করেছেন। বর্তমানে তিনি ফোবানার স্কলারশিপ কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে উত্তর আমেরিকায় নতুন প্রজন্মের মেধাবি ছাত্র-ছাত্রীদের বৃত্তি প্রদানের দায়িত্ব পালন করছেন।

টেক্সাস এবং ক্যানসাস অঙ্গরাজ্যের বিভিন্ন স্থানে ২৫টি ব্যবসা (চার্চ চিকেন) প্রতিষ্ঠানের মালিক রেহান রেজা ১৯৮৫ সালে যুক্তরাষ্ট্রে আসার পর ক্যালিফোর্নিয়া স্টেট ইউনিভার্সিটি থেকে এমবিএ করেছেন। সংগঠনের চেয়ার জন গিবসন ২৪ জানুয়ারি এ তথ্য জানিয়ে এনআরবি নিউজকে বলেন, ‘ডেমক্র্যাটিক পার্টির সর্বোচ্চ ফোরামের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী রেহান রেজাকে নির্বাহী সেক্রেটারি করতে পেরে আমিও খুবই খুশী। তার মত নিবেদিতপ্রাণ কর্মীর সাথে কাজের সুযোগ পেয়ে আমি উৎফুল্ল। বহুদিন যাবত তিনি অত্যন্ত নিষ্ঠার সাথে সাংগঠনিক দায়িত্ব পালনের মধ্য দিয়ে এমন গুরুত্বপূর্ণ পদে অধিষ্ঠিত হবার সুযোগ লাভ করলেন।’ পার্টির সর্বস্তরের সদস্যগণের সমাবেশ হবে ৩ মার্চ, সেখানেই নির্বাহী সেক্রেটারিকে সকলের সাথে পরিচয় করিয়ে দেয়া হবে বলেও জন গিবসন উল্লেখ করেন।

ডেমক্র্যাটিক পার্টির জাতীয় কমিটির ডেপুটি চেয়ার এবং মার্কিন কংগ্রেসে প্রথম মুসলমান কংগ্রেসম্যান কীথ এলিসন ( উবঢ়ঁঃু ঈযধরৎ ড়ভ ঃযব উবসড়পৎধঃরপ ঘধঃরড়হধষ ঈড়সসরঃঃবব ংরহপব ২০১৭ )এ প্রসঙ্গে এনআরবি নিউজকে বলেন, ‘রেহান রেজার অবস্থান ডেমক্র্যাটিক পার্টিতে সংহত হবার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশী-আমেরিকানদের গুরুত্ব বাড়লো। আশা করছি, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের গণবিরোধী কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে বাংলাদেশী-আমেরিকানরা নভেম্বরের মধ্যবর্তি নির্বাচনে সোচ্চার হবেন।’

রেহান রেজা বলেন, ‘প্রিয় জন্মভ’মি বাংলাদেশের কল্যাণে আরো বেশী অবদান রাখতে আগ্রহীদের উচিত হবে মার্কিন রাজনীতির সাথে ঘনিষ্ঠতা বৃদ্ধি করা।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here