কোয়েটার হাসপাতালে বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৯৩

0
318

211730Pak_kalerkamntho_picআন্তর্জাতিক ডেস্ক: ফের নাশকতায় রক্তাক্ত পাকিস্তান। কোয়েটার একটি হাসপাতালে জোরালো বোমা বিস্ফোরণে মৃত্যু হয়েছে কমপক্ষে ৯৩ জনের। গুলিতে হত এক আইনজীবীকে শ্রদ্ধা জানাতে যাওয়া মানুষজনকে টার্গেট করেই হাসপাতালে বিস্ফোরণ ঘটানো হয় বলে জানিয়েছে পাক সংবাদমাধ্যম।

আজ সোমবার সকালে বেলুচিস্তানের রাজধানী কোয়েটার একটি হাসপাতালে হঠাত্‍‌ই শক্তিশালী বোমা বিস্ফোরণ হয়। ৯৩ জনের মৃত্যুর পাশাপাশি প্রায় শতাধিক মানুষ গুরুতর আহত হয়েছেন। যুদ্ধকালীন তত্‍‌পরতায় আহতদের অন্যান্য হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কোয়েটার হাসপাতালগুলিতে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। গোটা এলাকা ঘিরে ফেলেছে পুলিশ।

সোমবার ভোরে গুলিবিদ্ধ বেলুচিস্তান বার অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট বিলাল আনসার কাসির মৃত্যু হওয়ায়, শেষযাত্রায় তাঁকে শ্রদ্ধা জানাতে হাসপাতালে গিয়েছিলেন বহু আইনজীবী ও সাংবাদিক। হাসপাতালের জরুরি বিভাগে বিলালের দেহের কাছে যখন প্রায় ৫০জন উপস্থিত, তখনই আচমকা বোমা বিস্ফোরণ হয় বলে জানিয়েছেন ঘটনাস্থলে উপস্থিত সাংবাদিক ফরিদুল্লাহ।

বিস্ফোরণের দায় স্বীকার করেছে পাক তালিবান। জঙ্গি সংগঠনের মুখপাত্র এহসানুল্লাহ এহসান ই-মেইল মারফত জানিয়েছেন, ‘এই হামলার জন্য দায় স্বীকার করছে তেহরেক-ই-তালিবান জামাত-উর-অহরার, এবং এমন আরও অনেক হানা চালানো হবে বলে্ দাবি করছে সংগঠন। কয়েক দিনের মধ্যেই আমরা এমন বেশ কয়েকটি ভিডিয়ো প্রকাশ করব।’

উল্লেখ্য, আদালতে যাওয়ার পথে কোয়েটার মন্নু জান রোডের মেঙ্গল চৌকের কাছে গুলি করে হত্যা করা হয় নামজাদা আইনজীবী তথা বালোচিস্তান বার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি বিলালকে। তাঁকে সামনে থেকে গুলি করে পালায় দুই অজ্ঞাতপরিচয় বন্দুকবাজ। হাসপাতালে নিয়ে গেলে বহু চেষ্টা করেও তাঁর প্রাণ বাঁচাতে পারেননি চিকিত্‍সকরা। প্রসঙ্গত, গত মার্চ মাসে কোয়েটার এক পার্কে বিস্ফোরণে প্রাণ হারান ৭২ জন। নিহতদের মধ্যে বহু শিশুও ছিল বলে জানা যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here