কাবুলে আমেরিকান ইউনিভার্সিটিতে হামলা, নিহত ১৩

0
254

kabul_23193_1472098601আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে আমেরিকান ইউনিভার্সিটিতে সন্ত্রাসী হামলার পর পুলিশের অভিযানে সাতজন ছাত্রসহ ১৩ জন নিহত হয়েছে। খবর বিবিসির।

বুধবার সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়টিতে কয়েকজন বন্দুকধারী ঢুকে পড়ে বিস্ফোরণ ঘটায়। এরপর তারা সেখানে হত্যাযজ্ঞ চালায়।

পরে সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে নিরাপত্তা বাহিনীর ১০ ঘণ্টার অভিযানে দু’জন হামলাকারীও নিহত হন। নিহতদের মধ্যে তিনজন পুলিশ ও ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের তিনজন দারোয়ান রয়েছেন।

কাবুল পুলিশ প্রধান আবদুল রহমান রহিমি জানিয়েছেন, এ ঘটনায় ৩৫ শিক্ষার্থী ও ৯ জন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। শিক্ষার্থী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী মিলে ৭৫০ জনকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

তিনি জানান, সন্ধ্যা ৭টা নাগাদ সন্ত্রাসীরা বিশ্ববিদ্যালয়টিতে হামলা চালায়। পরে আমেরিকান সেনাবাহিনীর পরামর্শকসহ বিশেষ বাহিনী সেখানে অভিযান চালায়।

এখন পর্যন্ত কোনো গ্রুপ এ হামলার দায় স্বীকার করেনি।

পুলিৎজার পুরস্কার বিজয়ী ফটোসাংবাদিক মাসুদ হোসাইনি হামলার ভয়াবহতা উল্লেখ করে টুইটারে সাহায্যের আবেদন করেন।

আফগানিস্তানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা জানান, ক্যাম্পাসে বিস্ফোরণ ও গুলির আওয়াজ শোনা গেছে। গোলাগুলি শুরুর পর শতাধিক শিক্ষার্থী পালিয়ে আসতে সক্ষম হলেও অনেকে ভেতরে আটকা পড়েন।

আটকে পড়াদের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী আহমাদ শাহির টেলিফোনে বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে জানান, তিনিসহ বিশ্ববিদ্যালয় কম্পাউন্ডে বিদেশী অধ্যাপকসহ শতাধিক শিক্ষার্থী আটকা রয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা ক্লাসরুমে আটকা পড়েছি। গোলাগুলি আওয়াজ শোনা যাচ্ছে।’ তবে অভিযান শেষে পুলিশের দাবি, অভিযানের পর আর কেউ সেখানে আটকা নেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here