কাঁচা গাজরের যত স্বাস্থ্য গুণ

0
20

স্বাস্থ্যসেবা ডেস্ক ॥
চিকিৎসকদের মতে প্রতিদিন নাকি একটি করে কাঁচা গাজর খাওয়ার অভ্যাস থাকলে বাড়িতে ওষুধের প্রয়োজন কমে যাবে। বিটা ক্যারোটিনে সমৃদ্ধ এই সবজির উপকারিতা আপনি জানেন কি? স্ট্রোক কিংবা হার্ট অ্যাটাক, চামড়ার রুক্ষতা কিংবা হলদেটে দাঁত— সব সমস্যার সমাধান রয়েছে এতে।

হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের এক রিপোর্ট অনুযায়ী, যেসব ব্যক্তি সপ্তাহে ৬টির বেশি গাজর খেয়েছেন বা খাচ্ছেন তাদের স্ট্রোক এবং কম বয়সে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি অনেকখানি কমে যায়।

বিশেষজ্ঞদের মতে সেদ্ধ গাজর, গাজরের তরকারি বা হালুয়া খেতে সুস্বাদু ও মজাদার হলেও তাতে উপকার তুলনামূলক কম। তার চেয়ে বরং কাঁচা গাজর খেলে বেশি উপকার মেলে।

স্বাস্থ্য সচেতন ব্যক্তিরা ইতোমধ্যেই নিয়মিত গাজর খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলছেন। দুপুরের খাবার কিংবা নৈশভোজ— সাথে রাখছেন সালাদ। আর এই সালাদে অন্য কোনো উপাদান থাক বা না থাক, কাঁচা গাজর রাখছেন আবশ্যিক হিসেবে। এই সালাদ স্বাস্থ্যের জন্য বেশ উপকারী।

পুষ্টিবিদদের মতে, এই সবজিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ও খনিজ পদার্থ। অনেকটা সময় পেট ভরিয়ে রাখতে সহায়ক এটি। তাই ক্যালরিযুক্ত খাবারের পরিবর্তে গাজর খেলে, ওজন হ্রাসের গতি বৃদ্ধি পায়।

গাজরে রয়েছে আলফা ক্যারোটিন, বিটা ক্যারোটিন ও লুটেন। তাই হার্ট সুস্থ রাখতে এটি কার্যকরী। এছাড়াও গাজরে থাকা ক্যারোটিনয়েড, ইনসুলিন প্রতিরোধ করে রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে।

এই সবজিতে থাকা পটাশিয়াম রক্ত সঞ্চালন প্রক্রিয়া স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করে, ফলে সহজে রক্ত জমাট বাধে না আর উচ্চ রক্তচাপও থাকে নিয়ন্ত্রণে।

এছাড়াও গাজরে থাকা ফ্যালক্যারিনল নামে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান স্তন ক্যানসার, কোলন ক্যানসার ও ফুসফুস ক্যানসার প্রতিরোধ করে। পাশাপাশি ত্বকে বলিরেখা ও রুক্ষতা দূর করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here