কংগ্রেস প্রার্থী ড. নীনার সমর্থনে ফিলাডেলফিয়ায় প্রবাসীদের সভা

0
89

নিউইয়র্ক থেকে : যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভেনিয়া অঙ্গরাজ্যে ফিলাডেলফিয়ার আপার ডারবি অনুষ্ঠিত হলো ফিলাডেলফিয়া (পিএ-১ কংগ্রেসনাল ডিস্ট্রিক্ট) থেকে ডেমক্র্যাটিক পার্টির কংগ্রেস প্রার্থী হতে আগ্রহী ড. নীনা আহমেদের প্রথম নির্বাচনী প্রস্তুতি সভা।

ড. নীনার নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সমন্নয়কারী বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব ডেলাওয়্যারভ্যালির সাবেক পেসিডেন্ট ড. ইব্রুল চৌধুরীর আহ্বানে কম্যুনিটির সকল সংগঠনের নেতারা এ সভায় অংশ নেন। গত রবিবার অনুষ্ঠিত এ সভায় পরিচালনা করেন মেলবোর্ন বরোর ভাইস প্রেসিডেন্ট নুরুল হাসান। তিনি সবাইকে ধন্যবাদ জানানোর পর সভা সঞ্চালনার দায়িত্ব নেন আপার ডারবির প্রথম বাংলাদেশি কাউন্সিলম্যান শেখ সিদ্দীক।

উল্লেখ্য, ডেমক্র্যাটিক পার্টির প্রাইমারি অনুষ্ঠিত হবে আসছে মে মাসে। সেই নির্বাচনে জয়ী করতে সকলেই বিভিন্ন কৌশল-বিবৃত করেন।

কাউন্সিলম্যান শেখ সিদ্দীক বলেন, সবাইকে আমেরিকার মূল রাজনীতির সাথে যুক্ত এবং  একত্রিত হয়ে ড. নীনাকে ফিলাডেলফিয়ার প্রথম বাংলাদেশি কংগ্রেসওম্যান হিসেবে নির্বাচিত করতে আন্তরিকতার সাথে কাজ করতে হবে। সকলকে স্মরণ রাখতে হবে যে, এটি ব্যক্তি নীনার নির্বাচন নয়, আমাদের নিজেদের নির্বাচন। নীনা জয়ী হলেই আমরা জয়ী হবো।

মেলবোর্ন বরোর কাউন্সিলম্যান মনসুর আলি মিঠু তার নির্বাচনী পরিকল্পনা ব্যক্ত করেন এবং তিনিও সবাইকে নীনার পক্ষে এক হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান।

মেলবোর্ন বুরোর ট্যাক্স কালেক্টর  মঈন চৌধুরীও সবাইকে আসন্ন প্রাইমারিতে ড. নীনাকে নির্বাচিত করতে অনুরোধ জানান। অনুষ্ঠানে ব্যক্তিগত মতামত ব্যক্ত করে আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কম্যুনিটি অব পেনসিলভেনিয়ার সভাপতি মোহাম্মদ হারেস, এই সংগঠনের প্রতিনিধি আলতামাস বাবুল, নর্থ-ইস্ট ফিলাডেলফিয়া বিয়ানিবাজার সমিতির প্রতিনিধি আলিম উদ্দীন, কম্যুনিটি নেতা সাখাওয়াত হোসেন, দেলাওয়ার হোসেন, রফিকুল ভুঁইয়া, মতিউর রহমান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে ড. নীনার উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও জরুরি কাজে ব্যস্ত থাকায় টেলি-কনফারেন্সে সবাইকে ধন্যবাদ জানান।

ড. ইব্রুল চৌধুরী তার বক্ত্যবে বলেন, আজ আমাদের সময় এবং সুযোগ এসেছে সব প্রবাসী বাংলাদেশিদের দলমতের ঊর্ধ্বে উঠে ড. নীনাকে জয়ী করার মধ্য দিয়ে এই মার্কিন মুল্লুকের মূলধারায় নিজেদের অবস্থানকে সংহত করার।

‘আমাদের বাংলাদেশি কম্যুনিটিতে অনেক সমস্যা রয়েছে যার সমাধান করতে সংসদে আমাদের একজন প্রতিনিধি থাকা জরুরি।’

ড. ইব্রুল বলেন, আমরা মনে করি নীনা একজন অভিজ্ঞ রাজনীতিক, অতীতেও তিনি তার যোগ্যতায় ওবামা প্রশাসনে স্থান করে নিয়েছিলেন। ফিলাডেলফিয়ার ডেপুটি মেয়র নিযুক্ত হয়েছিলেন। অতীতে বাংলাদেশের জিএসপি সুবিধা বাতিলের প্রতিবাদে আমেরিকা সরকারের কাছে বলিষ্ঠ পদক্ষেপ রেখেছেন। এছড়াও ফিলাডেলফিয়ায় প্রধান সড়কে বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলনের জন্য অনেক সাহায্য করেছেন এবং তার প্রশাসনে বাংলাদেশিদের কাজের সুযোগ দানে অনেক সহায়তা করেছেন। স্থানীয় প্রবাসী আফ্রিকান, এশিয়ান, হিস্প্যানিকদের কাছেও তিনি অনেক জনপ্রিয়। এছাড়া আমরা তাকে যখন যে অনুষ্ঠানে ডেকেছি তখনি কাছে পেয়েছি।

ইব্রুল বলেন, নীনা একজন উচ্চ সুশিক্ষিতা, সফল ব্যবসায়ী এবং সুদক্ষ রাজনীতিক। সবচেয়ে বড় কথা তিনি একজন বাংলাদেশি।

অনুষ্ঠানে নেতৃবৃন্দের মধ্যে আরো ছিলেন মুরাদ হোসেন, হেলাল উদ্দীন, এনামুল হক, জামাল উদ্দীন, নুরদ্দীন নাহিদ, ইউনুস মিয়া, আবুল কাশেম ,ইকবাল বাহার, আব্দুল্লাহ আল আমিন, সহিদুল ইসলাম, লেন্সডেল থেকে হেলাল উদ্দীন ভূঁইয়া, মফিজুল ইসলাম, হ্যাটফিল্ড থেকে মোহাম্মদ হক।

নীনার বিজয়ে কাজ করতে আগ্রহীরা যোগাযোগ করতে পারেন : ডা. ইব্রুল চৌধুরী ২৬৭-২৫৫-৫৬০৫, শেখ সিদ্দীক ২১৫-৬৫১-১৯২৩, মফিজুল ইসলাম ২১৫-৬৯২-২২৮৫।