ঐতিহাসিক জয় থেকে ৩৩ রান দূরে বাংলাদেশ

0
113

23স্পোর্টস ডেস্ক: ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ঐতিহাসিক জয় পেতে মাত্র ৩৩ রান পিছিয়ে বাংলাদেশ। আগামীকাল ম্যাচের শেষ দিনে নিশ্চিত হবে বিজয়ী দল।

এর আগে সিরিজের প্রথম টেস্টে দ্বিতীয় ইনিংসে সর্বমোট ২৮৬ রানের লক্ষ্য বেঁধে দিয়েছে ইংলিশরা। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৭৮ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৫৩ রান সংগ্রহ করে টাইগাররা।

বাংলাদেশর জয়ের জন্য প্রয়োজন আর মাত্র ৩৩ রান। হাতে আছে আগামীকাল সারাদিন ও দুই উইকেট। চতুর্থ দিন শেষে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৫৩ রান সংগ্রহ করেছে বাংলাদেশ। দলের হয়ে অপরাজিত আছেন সাব্বির (৫৯) ও তাইজুল (১১)।

এর আগে চতুর্থ দিনের দ্বিতীয় সেশনে ২৮৬ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে দুর্দান্ত শুরু করে টাইগার দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও ইমরুল কায়েস।

তবে সবাইকে হতাশ করে মাত্র ৯ রানে বিদায় নেন বাংলাদেশের সেরা উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল। মইন আলির বলে শর্ট লেগে ক্যাচ তুলে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তামিম।

তামিমের বিদায়ের পর মুমিনুলকে সঙ্গে নিয়ে জয়ের পথে এগিয়ে যাচ্ছিল ইমরুল। তবে আদিল রশিদের বলে সুইপ করতে গিয়ে রুটের হাতে তুলাবন্দি হয়ে ৪৩ রান নিয়ে সাজঘরে ফিরে যান ইমরুল।

এবার মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে জুটি গড়েন মুমিনুল। তবে ২২ রানে থামে তাদের জুটি। প্রথম ইনংসি গোল্ডেন ডাক মারার পর দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ২৭ রান করে গ্যারেথ ব্যাটির বলে এলবির শিকার হন মুমিনুল। আর মুমিনুলে দেখানো পথেই হাঁটেন মাহমুদউল্লাহ। গ্যারেথ ব্যাটির বলেই এলবি আউট হয়ে ১৭ রান নিয়ে ফেরেন তিনিও।

বল হাতে যেমন জ্বলে উঠেছিল সাবিক ঠিক ব্যাট হাতেও জ্বলে উঠবে এমনটাই আশা করেছিল ক্রিকেট প্রেমিরা। তবে সবাইকে হতাশ করে মঈন আলির বলে জনি বেয়ারস্টোর তালুবন্দি হন সাকিব। প্যাভিলিয়নে ফেরার পূর্বে ব্যাট থেকে আসে ২৪ রান।

এর আগে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ৮০.১ ওভার ব্যাট করে সবকয়টি উইকেট হারিয় ২৪০ রান সংগ্রহ করে সফরকারীরা। সে সাথে প্রথম ইনিংসের ৪৫ রান যুক্ত হয়ে টাইগারদের সামনে ২৮৬ লক্ষ্য দাঁড়ায়।

তৃতীয় দিন শেষে, দ্বিতীয় ইনিংসে আট উইকেট হারিয়ে ২২৮ রান সংগ্রহ করে ইংলিশরা। চতুর্থদিনের শুরুতেই উইকেট হারায় ইংল্যান্ড। আগের দিনের ২২৮ রানের সাথে মাত্র ১২ রান যুক্ত করতেই বাকি দুই উইকেট হারিয়ে ইনিংস শেষ হয় তাদের।

এর আগে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশকে মাত্র ২৪৮ রানে বেধে রেখে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামে ইংল্যান্ড।
প্রথম ইনিংসে টাইগারদের থেকে ৪৫ রানে এগিয়ে থেকে ব্যাট করতে নামে সফরকারীরা । প্রথম ইনিংসের মত দ্বিতীয় ইনিংসেও নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি ইংল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্চ টেস্ট খেলতে নামা অ্যালিস্টার কুক। অভিষিক্ত মেহেদী হাসান মিরাজের বলে মাহমুদউল্লাহর হাতে ক্যাচ দিয়ে মাত্র ১২ রান নিয়ে সাজঘরে ফেরেন তিনি।
এরপর ইংলিশ শিবিরে আঘাত হানেন টাইগার অলরাউন্ডার সাকিব। জো রুটকে মাত্র ১ রানেই এলবিডব্লিউয়ে ফাঁদে ফেলেন এই বাঁ-হাতি স্পিনার। নিজের পরের ওভারেই মুমিনুলের তালুবন্দি করে ডাকেটকে (১৫) সাজঘরে ফেরান বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার। ফলে মাত্র ২৮ রানে তিন উইকেট হারিয়ে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে ইংলিশরা।

মধ্যাহ্ন বিরতির পর সে চাপ আর কয়েক গুণ বাড়িয়ে তোলেন স্পিনার তাইজুল ইসলাম। তাইজুলের বলে কায়েসের দুর্দান্ত এক ক্যাচে সাজঘরে ফিরে যান গ্যারি ব্যালান্স। সাজঘরে ফেরার পূর্বে তার সংগ্রহ ছিল মাত্র ৯ রান। এরপর ইংলিশদের প্রথম ইনিংসের সেরা ব্যাটসম্যান মঈন আলি দলের হাল ধরার চেষ্টা করেন। তবে সাকিবের বলে সুইপ করতে গিয়ে মঈনের (১৪) গ্লাভস ছুঁয়ে আসা বল ঝাঁপিয়ে নিজের তালুবন্দি করেন মুশফিক।

বাংলাদেশের পক্ষে ৮৫ রানে ৫টি উইকেট নিয়েছেন সাকিব। এছাড়া ৪১ রান খরচ করে দুইটি উইকেট নেন তাইজুল এবং মিরাজ ও রাব্বি ও নেন একটি করে উইকেট ।

এর আগে গতকাল শনিবার ২২১ রান নিয়ে তৃতীয় দিন ব্যাট শুরু করে বাংলাদেশ। মাত্র ২৭ রান যুক্ত করেই ২৪৮ রানে গুটিয়ে বাংলাদেশ। ইংল্যান্ডের পক্ষে ২৬ রানে ৪টি উইকেট নিয়েছেন বেন স্টোকস। ৭৫ রানে ৩টি উইকেট নেন মঈন আলি। এছাড়া আদিল রশিদ ২টি ও গ্যারেথ বাটি ১টি উইকেট পান।