এটা আওয়ামী লীগের চুরি করার বাজেট: খালেদা

0
74

012_297449ঢাকা: বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বলেছেন, ‘এই বাজেট হলো লুটপাটের বাজেট। আওয়ামী লীগের চুরি করার বাজেট। অর্থমন্ত্রীও নিজে কিছুই করতে পারেন না।’

সুপ্রিম কোর্টের শহীদ শফিউর রহমান মিলনায়তনে বৃহস্পতিবার এক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে খালেদা জিয়া এসব কথা বলেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, ‘এ বাজেট কি আর বাজেট থাকবে নাকি। পরে দেখবেন যে প্রকল্পে এখন আছে ১০-২০ হাজার কোটি টাকা, সেটাকে ৩০ হাজার কোটি বানাবে। তারপর আবার ৪০ হাজার হবে।’

খালেদা জিয়া অভিযোগ করেন, ‘এর মাধ্যমে আওয়ামী লীগকে চুরি করার সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে।’

ইফতার অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য জমিরউদ্দিন সরকার, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আজ থেকে গ্যাসের দাম বাড়ানো হয়েছে। চালের দাম এত বেশি যে, গরিব মানুষ খেতে পারছে না। কাজেই গ্যাসের দাম বাড়ানো বন্ধ রাখুন। লুটপাট বন্ধ করে দেশের মানুষের দিকে একটু তাকান।’

‘মোরা’য় ক্ষতিগ্রস্তদের দুর্ভোগের প্রসঙ্গ টেনে বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, ‘এখনও কক্সবাজারে কোনো ত্রাণ যায়নি, তাদের দেখার জন্যও কেউ যায়নি।’

তিনি বলেন, ‘আজ আওয়ামী লীগ যে মিথ্যাবাদী, দুর্নীতিবাজ, অত্যাচারী, খুন-গুমের সরকার- তা পরিষ্কার। তাদের হাতে দেশের মানুষের জীবন-সম্পদ ও দেশ কোনোটাই নিরাপদ নয়।’

দেশের বিচার বিভাগকে সরকার নিয়ন্ত্রণ করছে বলেও অভিযোগ করেন বিএনপি চেয়ারপারসন।

তিনি বলেন, ‘দেশে গণতন্ত্র, আইনের শাসন, ন্যায় বিচার ও সকল মানুষের সমান অধিকার নেই। এখানে কোনো মানুষ নিরাপদ নয়। কাজেই এই অবস্থার অবসানে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।’

খালেদা জিয়া বলেন, ‘আগামী নির্বাচন অবশ্যই সব দলের সমান সুযোগ নিশ্চিত করে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে হতে হবে। অন্যথায় দেশে সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না।’

বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, ‘নিরপেক্ষ নির্বাচন নয়, ৫ জানুয়ারির মতো আরেকটি নির্বাচন করতে আজ আওয়ামী লীগ নানাভাবে ষড়যন্ত্র করছে। এমন নির্বাচনে দেশের মানুষ, কোনো দল অংশ নেবে না। নির্বাচন যদি আওয়ামী লীগ জোরপূর্বক করে, তাহলে সেই নির্বাচন থেকে তাদের বিদায় নিতে হবে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here