ইতিহাস গড়ে ১০ উইকেটে জিতল প্রোটিয়ারা

0
46

স্পোর্টস ডেস্ক: বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে হাশিম আমলা ও ডি ককের জোড়া সেঞ্চুরিতে ১০ উইকেটের ঐতিহাসিক জয় পেয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। সফরকারী বাংলাদেশের দেয়া ২৭৯ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে ডি কক-আমলার উদ্বোধনী জুটিই দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেয়। শেষ পর্যন্ত হাশিম আমলা ১১০ ও ডি কক ১৬৮ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন।

হাশিম আমলা ৯৯ বলে ও ডি কক ১০২ বলে তাদের সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন। সেঞ্চুরির পথে হাশিম আমলা ৮টি চার হাঁকান। আর ডি কক সেঞ্চুরির পথে ১২টি চার ও একটি ছক্কা হাঁকান। ৩০তম ওভারে সাকিব আল হাসানকে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে শতক পূর্ণ করেন ডি কক।

এর আগে ডি কক ৫৬ বলে ও হাশিম আমলা ৪৮ বলে ব্যক্তিগত অর্ধশতক হাঁকান। টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি ৭ জন বোলারকে ব্যবহার করেও এ জুটিকে আটকে রাখতে পারেননি।

এর আগে মুশফিকের অনবদ্য সেঞ্চুরিতে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২৭৯ রানের টার্গেট দেয়  টাইগাররা।  রোববার কিম্বার্লিতে ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেটে ২৭৮ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ।

ওয়ানডে ক্যারিয়ারে মুশফিকুর রহিমের এটি ৫ম ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে বাংলাদেশি হিসেবে প্রথম সেঞ্চুরি। ১১৬ বলে করা ১১০ রানের অপরাজিত এ ইনিংসটি ১১টি চার ও দুটি ছক্কায় সাজানো।

টস জিতে ব্যাট করতে নামা বাংলাদেশের উদ্বোধনী জুটি ভাঙে ৪৩ রানে। রাবাদার ইনসুইং বলে  স্লিপে দাঁড়ানো ফাফ ডু প্লেসিসের হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন  ২৯ বলে ২১ রান করা লিটন দাস। ওয়ান ডাউনে ব্যাটিং করতে নামেন সাকিব আল হাসান।

দলীয় ৬৭ রানে ব্যক্তিগত ৩১ রান করে প্রিটোরিয়াসের বলে বিদায় নেন ইমরুল। এবার মাঠে নামেন মুশফিক। সাকিব-মুশফিকের জুটি থেকে আসে ৫৯ রান। সাকিব ব্যক্তিগত ২৯ রানে নিলেও মুশফিক দেখেশুনে ব্যাট চালাতে থাকেন। এরপর মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে ৬৯ রানের জুটি গড়ে দলকে বড় সংগ্রহের ইঙ্গিত দেন। কিন্তু দলীয় ১৯৫ রানে প্রিটোরিয়াসের বলটাকে সীমানা ছাড়া করতে গিয়ে মিড অফে ডেভিড মিলারের তালুবন্দি হন মাহমুদউল্লাহ। ২৬ রান করেন মাহমুদউল্লাহ।

এরপর ২৩৭ রানে ফিরে যান সাব্বির রহমান (১৯)। কিন্তু থেমে থাকেননি মুশফিক। তার ব্যাটে রানের ফোয়ারা বইতেই থাকে। ৪৩তম ওভারে ইমরান তাহিরকে চার মেরে ওয়ানডেতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সর্বোচ্চ রানের মালিক হয়ে যান টেস্ট অধিনায়ক মুশফিক।

এর আগে ২০১৫ সালে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে সর্বোচ্চ ৯০ রান করেছিলেন সৌম্য সরকার। রাবাদার করা ৪৬তম ওভারে তৃতীয় বলে দুই রান নিয়ে শতক পূর্ণ করেন মুশফিকুর রহিম।  ওয়ানডেতে মুশির এটি পঞ্চম শতক।

এরপর নাসির হোসেনকেও হারায় বাংলাদেশ। তবে মুশফিকের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ভর করে শেষ পর্যন্ত ২৭৮ রান তোলে বাংলাদেশ। ১১০ রানে অপরাজিত ছিলেন মুশি। ইনিংসের শেষ বলে আউট হন ঝড় তোলা সাইফুদ্দিন (১৬)।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here