ইতালিতে সরকার গঠনে অচলাবস্থার আভাস

0
66

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: অভিবাসন ইস্যু ও অর্থনীতিকে প্রাধান্য দিয়ে উত্তাপপূর্ণ প্রচার-প্রচারণার পর ইতালির পার্লামেন্ট নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে। পছন্দের প্রার্থীকে বেছে নিতে রোববার সকালে ভোট শুরু হয়।

বিবিসির খবরে বলা হয়, প্রচারণার দুই সপ্তাহ আগে থেকে মতামত জরিপ পরিচালনা বন্ধ করে দেয়ায় কে বা কারা জয়ী হচ্ছেন, সেই সম্পর্কে আভাস দেয়াটা জটিল হয়ে পড়েছে। পূর্ববর্তী জরিপ অনুযায়ী, সাবেক প্রধানমন্ত্রী সিলভিও বার্লুসকোনির জোট এগিয়ে থাকলেও তারা সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিশ্চিত করতে পারবে না বলে মনে করা হচ্ছে। আর একক দল হিসেবে চরম বামপন্থী ফাইভ স্টার মুভমেন্ট (এমফাইভএস) এগিয়ে থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।

বিবিসি জানায়, রোববার সকাল ৭টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। শেষ হয় রাত ১১টায়। সোমবার সকাল নাগাদ ফল পাওয়া যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। এবারের নির্বাচনী প্রচারণায় প্রাধান্য পেয়েছে অভিবাসী ও অর্থনীতির ইস্যু।

২০১৩ সাল থেকে অবৈধ পথে পাড়ি দিয়ে ৬ লাখ অভিবাসী ইতালিতে পৌঁছেছে। অনেক ইতালীয় নাগরিকের কাছে বিষয়টি মোটেও স্বস্তিদায়ক নয়। আর রাজনীতিবিদরাও সেই ইস্যুটিকে নির্বাচনী প্রচারণায় কাজে লাগাতে চেয়েছেন। সাবেক প্রধানমন্ত্রী সিলভিও বার্লুসকোনির মধ্য ডানপন্থী দল ফোরজা ইতালিয়া আরও দুটি দলের সঙ্গে জোট গড়েছে। ডানপন্থীদের এবারের প্রচারণার মূল বিষয় ছিল, ৬ লাখ ‘অনিয়মিত’ অভিবাসীকে দেশে ফেরত পাঠানো।

অবৈধ অভিবাসীদের উপস্থিতিকে ‘সামাজিক টাইম বোমা’ হিসেবে অভিহিত করেছেন বার্লুসকোনি। ইতালির নতুন ইলেক্টোরাল আইনে এটিই প্রথম নির্বাচন। এ আইনে সরকার গঠনের ক্ষেত্রে ৪০ শতাংশ সমর্থন নিশ্চিত করতে হবে। জনপ্রিয় রাজনৈতিক দল ফাইভ স্টার কোনো দলের সঙ্গে জোট গঠন করেনি। একক দল হিসেবে ফাইভ স্টার এগিয়ে থাকলেও জোট গঠন না করলে তাদেরও সরকার গঠন করার সম্ভাবনা কম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here