ইতালিতে বাংলাদেশ সমাজকল্যাণ সংঘের ১০ বছর পূর্তি

0
96

ইতালি প্রতিনিধি: ইতালির রোমে বাংলাদেশ সমাজকল্যাণ সংঘের ১০ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে। সংঘের ১১ বছরে পদার্পণ ও বাঙ্গালির প্রাণের উৎসব বৈশাখ বরণ উপলক্ষে এক মিলন মেলার আয়োজন করা হয়।

স্থানীয় সয়ম দুপুর ১ টা থেকে তোরবেল্লা মনাক্কার হল রোমে ইতালির রাজধানী রোমের বিভিন্ন স্হান থেকে প্রবাসী বাঙ্গালিরা ভীড় করতে থাকেন। ২. ৩০ মিনিটে প্রীতিভোজ ও আনন্দ শোভাযাত্রার মধ্যদিয়ে বাংলাদেশ সমাজকল্যাণ সমিতির মহিলা নেত্রীবৃন্দ ও মহিলাঙ্গন ইতালির সভাপতি মনোয়ারা বেগম বেবির নেতৃত্বে মহিলাঙ্গন ইতালির নেত্রীবৃন্দ বৈশাখকে বরণ করে নেন।

বিশ্ব সঙ্গীত পরিষদ রোমের প্রতিষ্ঠাতা কাজী জাকারিয়া ও মহিলাঙ্গনের সভানেত্রী মনোয়ারা বেগম বেবির উপস্থাপনায় প্রথমেই সম্মিলিত কন্ঠে বাঙ্গালীর চিরচেনা সুর ‘এসো হে বৈশাখ এসো এসো’ গানের মধ্যদিয়ে বিকাল ৪টায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শুরু হয়।  অনুষ্ঠানে মনোমুগ্ধকর সঙ্গীত পরিবেশন করেন  বাংলাদেশ থেকে আগত সত্তর দশকের অন্যতম প্রধান কবি, শিশুসাহিত্যিক ও সাংস্কৃতিক-ব্যক্তিত্ব সৈয়দ আল ফারুক এবং জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী নাহিদ নাজিয়া ও স্থানীয় শিল্পী কাজি জাকারিয়া (বিটিভি), মো. সেলিমসহ প্রমুখ।

রোমের বাংলাদেশ সমাজকল্যাণ সংঘের দশ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে বৈশাখী সাংস্কৃতিক আয়োজন বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি ও দর্শকরা দীর্ঘ প্রায় ৫ ঘন্টা বিরামহীন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন।

কবি ও সাংস্কৃতিক-ব্যক্তিত্ব সৈয়দ আল ফারুক  শ্রোতা-দর্শকদের তার প্রিয় কবিতা আর দর্শকদের পছন্দের কবিতাগুলো পাঠ করে শোনান, প্রখ্যাত সঙ্গীতশিল্পী নাহিদ নাজিয়া জনপ্রিয় গান নিয়ে মন রাঙ্গালের প্রবাসী বাঙ্গালীদের এর মধ্যে ছিল আধুনিক গান, বাউল গান, হারানো দিনের গান, নিজের অ্যালবামের গান। প্রবাসে বেড়ে উঠা শিশুদের বাঙ্গালী কৃষ্টি, সংস্কৃতির সাথে পরিচয় করিয়ে দিয়ে আয়োজন করা হয় দেশিও খেলাধুলো। পরে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

সঙ্গীত অনুষ্ঠান শেষে বাংলাদেশ সমাজকল্যাণ সংঘ ( ৬ নং মুনিচিপিও) রোম ইতালির সভাপতি কামরুজ্জামান রতন উপস্থিত সকলের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনাদের সকলের সহযোগিতা ছিল বলেই আমরা সফলতার সাথে বিগত ১০ বছর কমিউনিটির পাশে থাকতে পেরেছি। আপনারা যদি আমাদের পাশে থাকেন আগামী ২০ বছরও সুন্দর ভাবে অতিক্রম করবো।
রতন আমন্ত্রিত অতিথিদের ও ঊনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলকে শত ব্যস্ততার মাঝে অনুষ্ঠনে আসায় ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।  অনুষ্ঠানে ইতালিস্থ রাজনৈতিক, সামাজিক, ও অঞ্চলীক নেত্রীবৃন্দ ও নানা শ্রেণির কর্মজীবী মানুষ উপস্থিত ছিলেন।