আমরা নির্বাচনে যাব: মির্জা ফখরুল

0
77

fhakrul_file-photo_samakal_306571ঢাকা: বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জানিয়েছেন, তার দল আগামী নির্বাচনে অংশ নিতে চায়। তবে সেই নির্বাচন হতে হবে নিরপেক্ষ সরকার ও নির্বাচন কমিশনের অধীনে।

রোববার রাজধানীর নয়া পল্টনে মওলানা ভাসানী মিলনায়তনে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির ‘সদস্য সংগ্রহ অভিযান’ উদ্বোধন করে এ কথা বলেন বিএনপি মহাসচিব।

নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন বর্জন করে বিএনপি। ‘নির্দলীয়’ শব্দটি উহ্য রেখে দলটি এখন ‘নিরপেক্ষ সহায়ক সরকারের’ অধীনে নির্বাচনের দাবি জানিয়ে আসছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমরা বারবার বলেছি, আমরা নির্বাচনে যেতে চাই এবং যাব। সেই নির্বাচন হতে হবে অবশ্যই একটি নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে এবং নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের পরিচালনায়।’

বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, ‘সব দলের জন্য সমান সুযোগ না থাকলে নির্বাচন অর্থবহ হবে না। তিনি প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে বলেন, আমরা থাকব আদালতের বারান্দায়, হাকিমের ঘরে অথবা জেলে; আর আপনি হেলিকপ্টারে করে সবদিকে নৌকার জন্য ভোট চেয়ে বেড়াবেন—সেই নির্বাচন হবে না।’

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র বিএনপি নেতা এমএ মান্নানকে তৃতীয় দফায় বরখাস্তের নিন্দা জানিয়ে ফখরুল বলেন, ‘বহু মেয়র ও উপজেলা চেয়ারম্যানকে এ সরকার নির্বাচিত হওয়ার পরও শান্তিতে দায়িত্ব পালন করতে দিচ্ছে না। একটা মামলা থেকে বেরিয়ে আসার পর যখন হাইকোর্ট থেকে অর্ডার নিয়ে গেছে, তখন আবার সেই নির্বাচিত মেয়রকে বরখাস্ত করেছে।’

গুম-খুন নিয়ে হিউম্যান রাইটস ওয়াচের প্রতিবেদন ‘অগ্রাহ্য করে’ আন্তর্জাতিক সংগঠনটি নিয়ে সরকারের ‘আক্রমণের’ সমালোচনাও করেন মির্জা ফখরুল।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান সোহেলের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশারের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, মহানগর নেতা শামসুল হুদা এবং রমেশ দত্ত প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক ফুটবলার আনোয়ার হোসেন ঢালী, পেশাজীবী নেতা প্রকৌশলী মো. কামরুজ্জামান প্রমুখ দলের মহাসচিবের হাত থেকে বিএনপির সদস্য ফরম সংগ্রহ করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here