আপন জুয়েলার্সের সাড়ে ১৩ মণ স্বর্ণ জব্দ হচ্ছে

0
109

007_292690_297957ঢাকা: বৈধ কাগজ দেখাতে না পারায় আপন জুয়েলার্সের সাড়ে ১৩ মণ স্বর্ণ আনুষ্ঠানিকভাবে জব্দ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর।

শনিবার শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. মইনুল খান সমকালকে এ তথ্য জানান।

রোববার এসব স্বর্ণালঙ্কার বাংলাদেশ ব্যাংকে হস্তান্তর করা হবে বলে জানান তিনি।

তিনি বলেন, ‘আত্মপক্ষ সমর্থনে আপন জুয়েলার্স কর্তৃপক্ষকে তিনবার শুনানির সুযোগ দিলেও তারা স্বর্ণের কোনোপ্রকার বৈধ কাগজ দেখাতে পারেনি। কোনো কাগজ দেখাতে না পারায় আনুষ্ঠানিকভাবে সেগুলো জব্দের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

মইনুল খান বলেন, ‘ওইসব স্বর্ণ এখন আপন জুয়েলার্সের পাঁচটি শোরুমে সিল-গালা অবস্থায় রয়েছে। রোববার এসব স্বর্ণ-হীরা ঢাকা কাস্টম হাউসের শুল্ক গুদামের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা দেওয়া হবে। এরপর আইনি প্রক্রিয়ায় জব্দকৃত স্বর্ণ শুল্ক আইন অনুযায়ী নিষ্পত্তি করা হবে।’  জব্দের সময় উপস্থিত থাকার জন্য আপন জুয়েলার্সের মালিক ও বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতির প্রতিনিধিদের জানানো হয়েছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

গত ১৪ ও ১৫ মে শুল্ক গোয়েন্দারা আপন জুয়েলার্সের গুলশান ডিসিসি মার্কেট, গুলশান অ্যাভিনিউ, উত্তরা, সীমান্ত স্কোয়ার এবং মৌচাকের পাঁচটি শোরুমে অভিযান চালিয়ে প্রায় সাড়ে ১৩ মণ স্বর্ণ ও ৪২৭ গ্রাম হীরা সাময়িকভাবে জব্দ করে।

এরপর আত্মপক্ষ সমর্থনে আপন জুয়েলার্স কর্তৃপক্ষকে তিন বার শুনানির সুযোগ দিলেও তারা এসব স্বর্ণ-হীরার কোনও প্রকার বৈধ কাগজ দেখাতে পারেনি। তবে আপন জুয়েলার্সের মালিকপক্ষের দেওয়া ১৮২ জনের তালিকার মধ্যে ৮৫ জন প্রকৃত গ্রাহককে মেরামতের জন্য জমা রাখা প্রায় ২ দশমিক ৩ কেজি স্বর্ণালঙ্কার অক্ষত অবস্থায় ফেরত দেওয়া হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here