আপনার স্মার্টফোন বিশ্বসেরা কি না মিলিয়ে নিন

0
213

1458108686সম্প্রতি স্মার্টফোনগুলোর সর্বশেষ হালানাগাদ তালিকা প্রকাশের পর গুগল আরো দুটি নতুন স্মার্টফোন বাজারে এনেছে। আর তাছাড়া নেক্সাস স্মার্টফোনগুলোও বাজার থেকে চিরবিদায় নিয়েছে। এছাড়া এলজিও নতুন স্মার্ট ফোন বাজারে ছেড়েছে। ওয়ান প্লাস চলতি মাসের শুরু দিকে একটি বিরল ঘোষণা দিয়েছে। বিশ্বের সেরা ২০ স্মার্টফোনের মধ্যে আপনার কোনটি? আপনি কিনতে পারেন এখানে এমন ২০ সেরা স্মার্টফোনের তালিকা দেওয়া হলো:

২০. ব্ল্যাকবেরি পাসপোর্ট

এর রয়েছে সুন্দর একটি কী বোর্ড। তবে বর্গাকার ডিজাইনের জন্যই এটি অনন্য। মূল্য: ২৮৩ ডলার।

১৯. ব্ল্যাকবেরি ক্ল্যাসিক

দেখতে পুরোনো ব্ল্যাকবেরি মডেলের মতো। তবে এর রয়েছে প্রখর একটি টাচ স্ক্রিন এবং চমৎকার শারীরিক কীবোর্ড। মূল্য: ২৮০ ডলার।

১৮. ব্ল্যাকবেরি প্রিভ

এতে ব্ল্যাকবেরির নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেমের বদলে বরং অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়। দেখতেও অনেকটা স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড্রয়েড ফোনের মতোই মনে হয়। এতে রয়েছে একটি স্লাইড-আউট কীবোর্ড। এছাড়া রয়েছে গুগল অ্যাপসগুলোতে প্রবেশাধিকার। মূল্য: ৩৭০ ডলার।

১৭. মোটো জি ফোর

সেটটি তিনটি মডেলে পাওয়া যায়- জি ফোর, জি ফোর প্লাস এবং আসন্ন জি ফোর প্লে। জি ফোর প্লাসে থাকবে ১৬ মেগা পিক্সেলের একটি ক্যামেরা। যেখানে রেগুলার জি ফোর সেটে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। এটি সেরা সস্তা স্মার্টফোন। জি ফোর প্লাসে একটি ফিঙ্গার প্রিন্ট সেন্সরও রয়েছে। মূল্য: ২০০ ও ২৫০ ডলার। জি ফোর প্লাসের মূল্য এখনো নির্ধারণ করা হয়নি।

১৬. স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ৫

এটি একটি আকর্ষণীয় বড় স্ক্রিনযুক্ত ফোন। আগের সংস্করণের মতো এরও রয়েছে একটি বড়, স্পন্দনশীল ডিসপ্লে এবং নোট গ্রহণের জন্য লেখনী। নতুন ধাতব এবং কাঁচ ডিজাইনও অসাধারণ। মূল্য: ৫৪৩ ডলার।

১৫. জেডটিই অ্যাক্সন ৭

চীনা কম্পানি জেডটিই নির্মিত ফোনটি শীর্ষ অ্যান্ড্রয়েড প্লেয়ারগুলোর মতোই বৈশিষ্ট সম্পন্ন। আর স্যামসাং, এলজি বা এইচটিসির মতো বড় নামের ব্র্যান্ডগুলোর চেয়ে ২৫০ ডলার কম খরচ হবে এটি কিনতে। মূল্য: ৪০০ ডলার।

১৪. এলজি জি৫

পুরোটাই জাঁকালো ধাতব ডিজাইনে নির্মিত। এর তলাটি অপসারণযোগ্য। ফলে এতে জুম ডায়ালসহ একটি ক্যামেরা গ্রিপ এবং উন্নত নিয়ন্ত্রণের জন্য শাটার বাটন যুক্ত করা যায়।
তাতেও যদি যথেষ্ট না হয় এর একটি ডুয়াল লেন্স ক্যামেরাও রয়েছে। যা ছবি তোলার সময় আপনাকে বিরল বৈচিত্র এনে দেবে। মূল্য: ৫৬০ ডলার।

১৩. এলজি ভি২০

সেটটির শীর্ষে থাকা এর দ্বিতীয় স্ক্রিনটি সত্যিই বেশ কাজের। এর মাধ্যমে আপনি আপনার প্রিয় অ্যাপস এবং সঙ্গীতের নিয়ন্ত্রণ পাবেন, এমনকি যখন স্ক্রিনটি লক থাকেব তখনও। মূল্য: ৬১৭ ডলার।

১২. এইচটিসি ১০

সুন্দর এবং চরমভাবে সুনির্মিত একটি স্মার্টফোন। এটি অ্যান্ড্রয়েডের প্রায় কাছাকাছি খাঁটি সংস্করণ। মূল্য: ৫৪৯ ডলার।

১১. মোট জেড

এই ফোনটি সবচেয়ে পাতলা ফোনগুলোর একটি এবং এটি সত্যিই জাঁকালো। এটিও অ্যান্ড্রয়েডের কাছাকাছি খাঁটি সংস্করণ। মূল্য: ৬২৪ থেকে ৭২০ ডলার।

১০. ওয়ান প্লাস ৩

সেরা অ্যান্ড্রয়েড ফোনগুলোর একটি। এর একটি নতুন ধাতব পিঠ দেখতে এবং অনুভূতিতে চমৎকার। এবং অ্যান্ড্রয়েডের কাছাকাছি খাঁটি সংস্করণ। মূল্য: ৪০০ ডলার।

৯. আইফোন এসই

৪ ইঞ্চি স্ক্রিনসহ আইফোন এসই এই মুহূর্তে কেনার জন্য সেরা ক্ষুদ্র গঠনের স্মার্টফোন। এতে রয়েছে সেরা সব অ্যাপস, ইকোসিস্টেম, সাপোর্ট এবং আইফোন সিক্স এস এর সমান পারফর্মেন্স। মূল্য: ৩৯৯ ডলার।

৮. আইফোন সিক্স এস

নুতন আইফোন ৭ এর চেয়ে ১০০ ডলার কম খরচ করেও আপনি অ্যাপলের উৎকৃষ্ট প্রযুক্তির অভিজ্ঞতা পেতে পারেন।
এছাড়া সুন্দর হার্ডওয়্যারের পাশাপাশি থার্ড পার্টি ডেভেলপারদের থেকে সেরা অ্যাপসগুলো প্রথমে পেতে পারেন। এবং অ্যাপলের সর্বশেষ এবং সেরা ফিচারের সফটওয়্যার আপডেট পাবেন এতে। মূল্য: ৫৩৯ ডলার।

৭. আইফোন সিক্স এস প্লাস

আইফোন ৭ প্লাস বাজার থেকে উঠে গেছে। আইফোন সিক্স এস প্লাস ১০০ ডলার কমে বিক্রি হচ্ছে। মূল্য: ৬৫০ ডলার।

৬. গুগল পিক্সেল এক্স এল

নতুন পিক্সেলটি গুগলের প্রথম স্মার্টফোন। মসৃণ সুদর্শন অ্যালুমিনিয়ামের এই ফোনটির পিঠে রয়েছে একটি স্টাইলিশ গ্লাস প্যানেল। আর রয়ছে একটি ক্যামেরা যা আইফোন ৭ প্লাস এবং স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ৭ এর সঙ্গে টেক্কা দেওয়ার যোগ্য। মূল্য: ৭৬৯ ডলার।

৫. গুগল পিক্সেল

পিক্সেল স্মার্টফোনগুলো গুগলের পিক্সেল লঞ্চারে চলে। যা অ্যান্ড্রয়েডকে আরো একটি পরিষ্কার চেহারা দেয়। গুগলের ডিজটাল অ্যাসিসটেন্টে প্রবেশাধিকার আছে। এই মুহূর্তে পিক্সেল লঞ্চার পিক্সেল ফোনের এক্সক্লুসিভ সংস্করণ। মূল্য: ৬৪৯ ডলার।

৪. স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ৭

স্মার্টফোনগুলোর মধ্যে সেরা ক্যামেরাযুক্ত এই সেটটি। এমনকি যা আইফোন ৭ প্লাসকেও হার মানায়। এটি অনেক ক্ষমতাশালীও বটে এবং পানিনিরোধক ও প্রসারণযোগ্য স্টোরেজ সুবিধার জন্য মাইক্রোএসডি কার্ড স্লট রয়েছে এর। মূল্য: ৫২৭ ডলার।

৩. স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ৭ এজ

রেগুলার গ্যালাক্সি এস ৭ এর চেয়ে বড় ৫.৫ ইঞ্চির ডিসপ্লে এবং বড় ব্যাটারি রয়েছে ফোনটিতে। এছাড়া পানিরোধী ব্যবস্থা, প্রসারণযোগ্য স্টোরেজ সুবিধার জন্য মাইক্রোএসডি কার্ড স্লট এবং স্যামসাং পে এর মতো ফিচারগুলোও রয়েছে। মূল্য: ৬১৫ ডলার।

২. আইফোন ৭
ইউজারদের জন্য নিঃসন্দেহে সেরা অ্যাপস এবং ইকোসিস্টেম সরবরাহ করে আইফোন ৭। ইকোসিস্টেম মানে হলো কোনো সমস্যা হলে অ্যাপল থেকে সহায়তা অর্জন। এবং সরাসরি অ্যাপল থেকে সফটওয়্যার হালনাগাদকরন।
এছাড়াও রয়েছে আরো কিছু বিস্ময়কর অ্যাপল পণ্য, যেমন ওয়্যারলেস ইয়ারফোনসহ নতুন এয়ারপড।
এছাড়া হার্ডওয়্যারে কিছু উন্নতি আনা হয়েছে। যেমন এটি পানিনিরোধী। এর ক্যামেরাটি স্বল্প আলোতেও ভালো কাজ করে। আরো শক্তিশালি একটি প্রসেসর এবং এমনিক পুনঃডিজাইনকৃত অ্যান্টেনা ব্যান্ডও যুক্ত করা হয়েছে। মূল্য: ৬৫০ ডলার।

১. আইফোন ৭ প্লাস
এটি সেরা স্মার্টফোন যা আপনি অ্যাপস, ইকোসিস্টেম, পানিনিরোধী ব্যবস্থা এবং ডুয়াল ল্যান্স ক্যামেরার জন্য কিনতে পারেন। ক্যামেরাটিই একে আইফোন ৭ থেকে আলাদা করেছে। মূল্য: ৭৬৯ ডলার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here