আটলান্টিক সিটিতে গীতি আলেখ্য ” ভানুসিংহের পদাবলী” মঞ্চস্থ

0
161

10102016_10_vanu_singআটলান্টিক সিটি:  কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের অন্যতম মহান কীর্তি গীতি আলেখ্য “ভানুসিংহের পদাবলী” । এই গীতি আলেখ্যর গ্রন্থনায় উল্লেখ করা হয়েছে, “জয়দেব কবি মদিত করেছিল বালক রবীন্দ্রনাথকে। উজ্জ্বল রসে মঙ্গল গীতে নয়, ধ্বনি চপল সংস্কৃত ভাষার বুঝা না বুঝার রহস্যে শিশু মনকে দুলিয়ে দিয়ে বিদ্যাপতি এসেছিলেন, তারপর কবির কিশোর মনের গভীরে ভাষাটি ছিল তার ব্রজবলী।বুঝা না বুঝার নিশাধ্বনি তরঙ্গে ধরাপথে বয়ঃসন্ধির মগ্ন কবি তলিয়ে গেলেন জ্ঞান নিবিড় রহস্যালোকে, জন্ম হলো পদাবলীর নৌল কিশোর কবি ভানুসিংহের।”

যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সি অঙ্গরাজ্যের আটলান্টিক সিটিতে শ্রী শ্রী গীতা সংঘের উদ্যোগে শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে গত নয় অক্টোবর, রবিবার রাতে মঞ্চস্থ হল গীতি আলেখ্য “ভানুসিংহের পদাবলী”। প্রবাসে বহুজাতিক সংস্কৃতিতে বেড়ে ওঠা প্রজন্মের অংশগ্রহনে এই গীতি আলেখ্য উপস্থিত সুধীজন প্রাণভরে উপভোগ করে।তাদের পরিবেশনা ছিল মন্ত্রমুগ্ধ হওয়ার মতো। বিশিষ্ট নৃত্য শিল্পী ও কোরিওগ্রাফার নিবেদিতা ভট্টাচার্যর সুনিপুন নির্দেশনায় খুদে অংশগ্রহনকারীরা তাদের নান্দনিক পরিবেশনায় প্রায় দেড় ঘণ্টা ধরে সুধীজনদের বিমোহিত করে রাখে।সেইসাথে সুধীজনদের বাড়তি পাওনা ছিল জয়ন্ত কুমার সিংহ ও মনিকা দাশ এর সাবলীল ও প্রাঞ্জল ধারা বর্ণনা।

গীতি আলেখ্যর গ্রন্থনায় ছিলেন জয়ন্ত কুমার সিংহ।এই গীতি আলেখ্যে অংশগ্রহন করে হৃদিকা, অংকিতা, পঞ্চতপা, অনামিকা, চন্দ্রিমা, সুদীপ্তা, আনন্দিতা, সারদা, ঐশীকা, কর্নেলিয়া, অহনা, সপ্তর্ষি । রূপসজ্জা ও কেশবিন্যাসে ছিলেন নিশা বিশ্বাস।

অনুষ্ঠান শেষে উপস্থিত সুধীজন ভিন্ন সংস্কৃতিতে বেড়ে ওঠা প্রজন্মের নান্দনিক পরিবেশনার জন্য তাদের টুপিখোলা অভিনন্দন জানান এবং কোরিওগ্রাফার নিবেদিতা ভট্টাচার্যর ভূয়শী প্রশংসা করেন।এই অনুষ্ঠান উপভোগ করার জন্য ঐদিন সন্ধ্যায় প্রবাসী হিন্দুদের সব পথ এসে যেন মিশেছিল গীতা সংঘ প্রাঙ্গণে।কাদা থিকথিক ভিড়ে পরিনত হয়েছিল পুরো উৎসব প্রাঙ্গণ।অনুষ্ঠান শেষে সবাই তৃপ্তির ঢেকুর তুলতে তুলতে নিজ ডেরার পথে পা বাড়ান।