আইনমন্ত্রী ও অ্যাটর্নি জেনারেলের পদত্যাগ করা উচিত

0
63

ঢাকা: আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন বলেছেন, প্রধান বিচারপতির বক্তব্যে পরিষ্কার হয়েছে যে, শোড়ষ সংশোধনীর পরই বিচার বিভাগ তথা প্রধান বিচারপতির ওপর এই হামলা। প্রধান বিচারপতি অসুস্থ নন, তার বক্তব্যেই এটা প্রমান হয়েছে, যা সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি এতদিন বলে আসছিল।

প্রধান বিচারপতিকে ছুটিতে পাঠানোর ঘটনায় আইনমন্ত্রী আনিসুল হক ও অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমকে পদত্যাগ করা উচিৎ বলেও মনে করেন সমিতির সম্পাদক মাহবুব উদ্দিন খোকন।

শনিবার বেলা ১২টার দিকে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে এক সাংবাদিক সম্মেলনে তারা এসব কথা বলেন।

অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার প্রাক্কালে সাংবাদিকদের কাছে দেয়া বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে আইনজীবী সমিতি এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে।

গত ৩ অক্টোবর প্রধান বিচারপতি ছুটিতে যান। এরপর থেকে আইনজীবী সমিতি অভিযোগ করে আসছে প্রধান বিচারপতিকে জোর করে দেশ ত্যাগে বাধ্য করছে সরকার।

আইনজীবী সমিতির সভাপতি বলেন, একটি রাজনৈতিক মহল, আইনজীবী ও সরকারের মাননীয় মন্ত্রী ব্যক্তিগতভাবে প্রধান বিচারপতির সমালোচনা করেছেন। যা বিব্রতকর বলে প্রধান বিচারপতি তার বক্তব্যে তুলে ধরেছেন। তিনি অসুস্থ নন, সুস্থ এবং আবারও দেশে ফিরবেন বলেও জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, প্রধান বিচারপতিকে হয়তো তার সব বক্তব্য প্রকাশ করতে দেয়া হয়নি। হয়তো আরও কিছু বলতে চেয়েছিলেন।

জয়নুল আবেদনী বলেন, গত ৩ অক্টোবর গেটটুগেদারের আগের দিন কি ঘটেছিল, কোন পরিপ্রেক্ষিতে তাকে ছুটিতে যেতে বাধ্য করা হয়েছে? তিনি সব কথা বলে যেতে না পারলেও একটি লিখিত বিবৃতি দিয়েছিলেন।

তিনি বলেন, আইনজীবী সমিতি এতো দিন দৃঢ়ভাবে যা বলেছে (প্রধান বিচারপতিকে জোর করে দেশ ত্যাগ করানো হচ্ছে), তা সত্য হিসেবে প্রকাশ হয়েছে।

বিএনপিপন্থি এই সিনিয়র আইনজীবী বলেন, বিচার বিভাগের স্বাধীনতার জন্য আমরা আজ সারা দেশের আপমর জনগণ ও আইনজীবীদের সর্বত্র সহযোগিতা কামনা করছি। এই হামলা বিচার বিভাগের ওপর নয়, এই হামলা বাংলাদেশের সংবিধানের ওপর।

প্রধান বিচারপতির বক্তব্যের উদ্বৃতি দিয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি আব্দুল ওয়াহহাব মিঞাকে আহ্বান জানিয়ে জয়নুল আবেদীন বলেন, আপনি আইনের শাসন ও বিচার বিভাগের স্বাধীনতাকে সমুন্নত রাখার জন্যে অত্যন্ত দৃঢ় থাকবেন, আইনজীবী সমিতি তাতে সর্বাত্মক সহায়তা করবে।

তিনি বলেন, রাষ্ট্রের প্রধান হচ্ছেন রাষ্ট্রপতি, কাজেই রাষ্টপতিকে আমরা আহ্বান জানাচ্ছি- বিচার বিভাগকে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন, রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব পালন করুন।

সংবাদ সম্মেলনে আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক ও অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম তারা সাংবিধানিক পদে থেকে সংবিধান লংঘন করেছেন। তাদের সাংবিধানিক পদে থাকার কোনো অধিকার নেই। তাদের পদত্যাগ করা উচিৎ।

সাবেক তিনজন প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে তদন্ত কমিটি গঠন করে বিষয়টি (প্রধান বিচারপতির ছুটি ও অসুস্থতা) সুষ্ঠু তদন্তের আহ্বান জানান তিনি।

তা না হলে সংবিধান থাকবে না, সংবিধানের ওপর কারো আস্থা থাকবে না বলেও মন্তব্য করেন আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক।

সমিতির আওয়ামীপন্থি আইনজীবী ও সিনিয়র সহ-সভাপতি ওজিউল্লাহ’র নেতৃত্বে কয়েকজন আইনজীবী সেখানে সংবাদ সম্মেলন করতে চাইলে বিএনপিপন্থি আইনজীবীদের বাধার মুখে পড়েন। পরে আইনজীবী সমিতির ভবনের সামনে সাংবাদিকদের ব্রিফিং করেনে তিনি।

ওজিউল্লাহ বলেন, আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে সমিতিকে ব্যবহার করছেন।

প্রধান বিচারপতির সুরেন্দ্র কুমার সিনহা বলেছেন, তিনি অসুস্থ নন, সুস্থ আছেন- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে, আওয়ামীপন্থি এই আইনজীবী বলেন, যখন প্রধান বিচারপতি ছুটির জন্যে দরখাস্ত করেছেন তখন তিনি অসুস্থ ছিলেন। দেশে চিকিৎসার পর এখন মোটামুটি সুস্থ। সেটাই তিনি সাংবাদিকদের বলেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here