আইনমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন আজ

0
16

ঢাকা: রাষ্ট্রপতির কাছে লেখা ছুটির আবেদনে ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে অসুস্থতার কথা বলা হলেও বিদেশ যাওয়ার আগে প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা তা অস্বীকার করায় এ বিষয়ে শুরু হয়েছে নানা বিতর্ক। এ অবস্থায় সরকারের অবস্থান ব্যাখ্যা করতে আজ সংবাদ সম্মেলন ডেকেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

শনিবারই সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলে পুরো বিষয়টি খোলাসা করার কথা ছিল আইনমন্ত্রীর। কিন্তু সরকার ও দলের সংশ্লিষ্টদের মতামত নিতে আইনমন্ত্রী একদিন পর সংবাদ সম্মেলনে আসছেন।

আজ বেলা সাড়ে ১১টায় সচিবালয়ে আইনমন্ত্রীর কার্যালয়ে ওই সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত হতে সাংবাদিকদের কাছে আইন মন্ত্রণালয় থেকে শনিবার একটি আমন্ত্রণপত্রও পাঠানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, ‘আপনার সদয় অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মাননীয় মন্ত্রী আসিনুল হক ১৫ অক্টোবর বেলা সাড়ে ১১টায় সচিবালয়ে তার অফিস কক্ষে সাম্প্রতিক বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করবেন।’

শুক্রবার রাতে দেশ ছাড়ার আগে প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা গণমাধ্যমকে দেয়া লিখিত ও মৌখিক বক্তব্যে বলেছেন, তিনি অসুস্থ নন। নিজেকে সম্পূর্ণ সুস্থ দাবি করে তিনি বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিয়ে শঙ্কার কথাও বলেন। উল্লেখ করেন, সরকার উচ্চ আদালতে হস্তক্ষেপ করছে। সরকারের আচরণে বিব্রত হয়ে তিনি ছুটি নিয়েছেন বলেও অভিযোগ করেন। তার অভিযোগের পর রাজনীতি ও বিচার অঙ্গনে চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা। তার বক্তব্যকে হতাশাজনক ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত আখ্যা দিয়ে আওয়ামী লীগের নেতারা বলেছেন, তার এ ধরনের বক্তব্যে অস্থিরতা তৈরি করবে। তার বক্তব্য অগ্রহণযোগ্য ও অসমীচীন। অন্যদিকে বিএনপি বলছে, তারা এতদিন যা বলে আসছিলেন সেটাই সত্য হচ্ছে। প্রধান বিচারপতি সুস্থ। তাকে জোর করে দেশ থেকে পাঠানো হচ্ছে। যদিও চাপ দিয়ে প্রধান বিচারপতিকে ছুটিতে পাঠানোর যে অভিযোগ বিএনপি করছে, তা নাকচ করে বিচারপতি সিনহা বলেছেন, বিচার বিভাগ যাতে ‘কলুষিত না হয়’, সেজন্য তিনি নিজেই ‘সাময়িকভাবে’ যাচ্ছেন।

এর আগে ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার কারণে প্রধান বিচারপতি রাষ্ট্রপতির কাছে এক মাসের ছুটি চেয়েছেন বলে এস কে সিনহার ছুটির আবেদনটি ৪ অক্টোবর সাংবাদিকদের দেখিয়েছিলেন আইনমন্ত্রী।

সিঙ্গাপুর এয়ালাইন্সের ফ্লাইট এসকিউ ৪৪৭-এ শুক্রবার রাত ১১টা ৫৭ মিনিটে অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশে ঢাকা ছাড়েন প্রধান বিচারপতি। সেখানে তিনি তার মেয়ে সূচনা সিনহার বাসায় উঠবেন বলে সুপ্রিম কোর্টের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here