অর্থ উদ্ধারে দুদকের সঙ্গে কাজ করবে এফবিআই

0
153

ddk_fbi_jugantor_48830_1496677396ঢাকা: দেশের বাইরে পাচার হওয়া অর্থ উদ্ধার ও জঙ্গি অর্থায়ন রোধে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সঙ্গে কাজ করতে চায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা (এফবিআই)।

সোমবার দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদের সঙ্গে তার দফতরে বৈঠক করে এমন আগ্রহের কথা জানিয়েছেন এফবিআইয়ের প্রতিনিধি ডেভিড ইটেন ও জেমস পেরেক।

এ বৈঠক শুরুর আগে আলোচনার বিষয় সম্পর্কে জানতে চাইলে দুদক চেয়ারম্যান বলেন, দেশের বাইরে অর্থ পাচার হচ্ছে। সরকারি কর্মকর্তাদের পাচার করা অর্থ উদ্ধারের পন্থা নিয়ে আলোচনা হতে পারে। এছাড়া দুদক কর্মকর্তাদের সক্ষমতা বৃদ্ধির বিষয়ও আলোচনায় থাকবে।

সোমবার দুপুর ১২টা থেকে পৌনে ১টা পর্যন্ত এফবিআই প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠককালে পাচার হওয়া অর্থ উদ্ধারের বিষয় ছাড়াও দুদকের অনুসন্ধান ও তদন্তকাজে দুদক কর্মকর্তাদের সক্ষমতা বাড়াতে এফবিআইর সহযোগিতা চাওয়া হয়। দুদক কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ দেয়ার বিষয়টিও আলোচনায় উঠে আসে।

আগামী মাসে এফবিআইয়ের আরেকটি উচ্চ পর্যায়ের টিম দুদকে আসবে বলে জানা গেছে। আর তখনই উভয়পক্ষের মধ্যে যৌথভাবে কাজের অংশ হিসেবে একটি সমঝোতা স্মারক হতে পারে।

সূত্র জানায়, জাতিসংঘের দুর্নীতিবিরোধী কনভেনশনের ৪৮ নম্বর অনুচ্ছেদ অনুযায়ী দুদক এফবিআইয়ের সঙ্গে সমঝোতা চুক্তির প্রস্তাব দেয়।

৪৮ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, সদস্য দেশগুলো দুর্নীতি প্রতিরোধে দ্বিপক্ষীয় বা বহুপক্ষীয় চুক্তি করতে পারে অথবা সরাসরি সহায়তার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি করতে পারে। এফবিআই এ বিষয়ে ইতিবাচক মনোভাব দেখিয়েছে।

সোমবারের আলোচনার বিষয় তুলে ধরে দুদকের এক কর্মকর্তা যুগান্তরকে বলেন, সন্ত্রাসে অর্থায়ন রোধে একযোগে কাজ করবে দুদক ও এফবিআই। এ বিষয়ে উভয়পক্ষ একমত হয়েছে। দুদক কর্মকর্তাদের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য নানা ধরণের প্রশিক্ষণ ও কর্মশালার আয়োজন করবে দুদক। এতে এফবিআইয়ের  তদন্ত বিশেষজ্ঞরা যুক্ত হয়ে প্রশিক্ষণ দেবেন।

দুদকের মহাপরিচালক (প্রতিরোধ) ড. শামসুল আরেফিনের নেতৃত্বে মহাপরিচালক ও পরিচালক পর্যায়ের কর্মকর্তারা এফবিআইয়ের প্রতিনিধিদের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখবেন বলে বৈঠক সূত্রে জানা গেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here