অবসাদে ভুগেছেন হৃত্বিক

0
130

7-2বিনোদন ডেস্ক: ব্যক্তিগত জীবনে অনেক ওঠানামার মধ্যে দিয়ে গিয়েছেন। এক সময় অবসাদেও ভুগেছেন বলিউড তারকা হৃত্বিক রোশন। তাই তিনি মনে করেন, মনোরোগ নিয়ে লুকোছাপার কিছু নেই। বরং আর পাঁচটা বিষয়ের মতোই মনের অসুখ নিয়েও খোলামেলা আলোচনা করা উচিত।

২০১৪ সালে বলিউডের ‘গোল্ডেন কাপ্‌ল’ হৃত্বিক আর সুজানের বিচ্ছেদ অনেককেই অবাক করেছিল। সুজান আলাদা হয়ে যাওয়ার পর বেশ খারাপ সময়ের মধ্যে দিয়ে গিয়েছেন হৃত্বিক। বিচ্ছেদের জন্যে কে দায়ী, সুজানের অন্য সম্পর্ক, বাচ্চাদের ভবিষ্যৎ— সবকিছু নিয়েই তখন ঝড় উঠেছিল মিডিয়ায়।

একটু সামলে ওঠার পরও বিতর্ক হৃত্বিকের পিছু ছাড়েনি। কঙ্গনা রানাউতের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক নিয়ে কম জলঘোলা হয়নি মিডিয়ায়। তার রেশ এখনও কাটেনি।

হৃত্বিক-সুজানের বিচ্ছেদের আগেও অবশ্য বহুবার হৃত্বিকের নাম জড়িয়েছে বিভিন্ন সহ-অভিনেত্রীর সঙ্গে। তাই তাঁর ব্যক্তিগত জীবনে যে ওঠানামা লেগেই থাকে, তা নিয়ে সন্দেহ নেই। হৃত্বিক নিজেও তা স্বীকার করে নিলেন। তবে মনে করেন, সব রকম অভিজ্ঞতার দাম রয়েছে। ভালর পাশাপাশি খারাপগুলোও তাঁকে অনেক কিছু শিখিয়েছে। মানুষ হিসেবে আরও পরিণত হয়েছেন তিনি।

তাই মনোরোগ নিয়ে লুকোছাপা তাঁর মোটেই পছন্দ নয়। ‘আমরা পেটের বা কিডনির সমস্যা হলে কত স্বাভাবিকভাবে সেগুলো নিয়ে আলোচনা করি। অথচ মস্তিষ্কে সমস্যা দেখা দিলে এড়িয়ে যাই। এটা উচিত নয়। আর পাঁচটা রোগের মতোই মনোরোগেরও চিকিৎসার প্রয়োজন। ঠিকমতো চিকিৎসা করালে সেরেও যায়। তাই আমাদের উচিত, এগুলো নিয়ে খোলামেলা আলোচনা করা,’ বললেন হৃত্বিক।

নায়ক জানিয়েছেন, ডিপ্রেশনের সময় সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন একজন ভাল বন্ধুর। যে পরিষ্কারভাবে চিন্তা করতে শেখাবে। নিরপেক্ষভাবে বোঝাতে পারবে, পরিস্থিতি ঠিক কী রকম। ‘আমি অনেক বছর ধরে দেখেছি, আমার বন্ধুরা চুপচাপ ডিপ্রেশনের সঙ্গে লড়াই করছে। কাউকে কিছু বলতে পারছে না। এই মানসিকতা বদলানো প্রয়োজন। দরকার পড়লে অন্যের সাহায্য নিতে হবে। তাতে লজ্জার কিছু নেই,’ মত অভিনেতার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here