অন্ত্রকে বিষমুক্ত করার কার্যকর ঘরোয়া দাওয়াই

0
97

আমরা আমাদের দেহে জড়ো হওয়া বিষ সম্পর্কে অনেক কথাই শুনি এবং সেসব কীভাবে আমাদের ক্ষতি করছে তাও জানি। আমাদের দেহও এসব বিষ প্রাকৃতিকভাবেই প্রতিদিন পরিষ্কারে সক্ষম। কিন্তু যখন এসবের ভার অসহনীয় হয়ে পড়ে তখন আমাদের দেহের একটু বাড়তি সহায়তার দরকার হয়।

মৃত ব্যাকটেরিয়া, চর্বির গাদ, ভারী ধাতব পদার্থ, পরজীবি জীবাণু, ক্লোরিন, ফ্লুওরাইড, কীটনাশক, অ্যান্টিবায়োটিক, হজম না হওয়া খাবার এবং অন্যান্য বিষাক্ত পদার্থ খুব দ্রুতই আপনার স্বাস্থ্য ধ্বংস করে দিতে পারে।

অন্ত্রে যেসব বিষ জমা হয় সেসব অবশ্যই বের করে ফেলতে হয়। কিন্তু আমাদের দেহ যদি নিজে সেসবকে দ্রুত বের করে দিতে ব্যর্থ হয় তাহলে সেসব রক্তের সঙ্গে মিশে যেতে পারে।

আর এর ফলেই আপনি ভারি এবং ক্লান্ত বোধ করেন। এছাড়া আপনি জয়েন্টে ব্যাথা, স্মৃতির দৌর্বল্যতেও আক্রান্ত হতে পারেন। এবং অযাচিতভাবে আপনার ওজন বেড়ে যেতে পারে।

অন্ত্রকে এইসব থেকে মুক্ত পারে একটি সহজ ঘরোয়া ওষুধ। এই ওষুধটি তিনদিন ধরে খেতে হবে।

তাহলেই কেল্লাফতে!

ওষুধটি বানাবেন কীভাবে?

উপাদান:
গাজর, বীট-পালং, বাধাকপি, অলিভ অয়েল এবং লেবুর জুস

পদ্ধতি
গাজর, বীট-পালং এবং বাধাকপি ভালো করে রগড়িয়ে মেশান এবং সালাদ তৈরি করুন। এরপর কয়েকটি তুলসী পাতা, পার্সলে শাক এবং লবঙ্গ নিয়ে কুচিকুচি করে সেই সালাদের ওপর ছিটিয়ে দিন। এরপর লেবুর জুস এবং অলিভ অয়েল যুক্ত করুন।

কীভাবে কাজ করে এটি?
এই সালাদে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন, মিনারেল, ফাইবার এবং পেকটিন। এসব উপাদান অন্ত্র পরিষ্কারের জন্য দারুণ কাজে আসে।

তিনদিন পর্যন্ত প্রতিদিন সকালে প্রথমেই এই সালাদ খান বা রাতের খাবার হিসেবে খান। আর প্রতিবেলায় শুধু ক্ষুধা মেটানোর জন্য পরিমিত পরিমাণে খাবার খান।

দেহে উৎপন্ন বিষ কীভাবে স্নায়ুতন্ত্রকে ক্ষতিগ্রস্ত করে?
দেহে বিষ জমা হলে মানবদেহের পুরো স্নায়ুতন্ত্র অকেজো হয়ে পড়তে পারে। এছাড়া অন্ত্রে জমা হওয়া রোগ-জীবাণুর ভারসাম্য হারালে স্নায়ু কোষগুলোও ভালো মতো কাজ করতে পারে না।

কীভাবে বুঝবেন আপনার অন্ত্রে বিষ জমেছে কিনা?
যেসব লক্ষণ দেখে বুঝবেন অন্ত্রে জমা হওয়া বিষ আপনার স্বাস্থ্য ধ্বংস করছে- ভারী অনুভূতি, গ্যাস সমস্যা, জিহ্বায় সাদা আস্তরণ পড়া, রাতে ভালো ঘুম হওয়ার পরও আলস্য এবং ঘনঘন সর্দি লাগা।

আপনার পায়খানা কি ঠিক মতো হয়?
অন্ত্রের স্বাস্থ্য ভালো থাকার একটি বড় লক্ষণ হলো ঠিকঠাক মতো পায়খানা হওয়া। প্রতিবেলা বড় খাবারের ২-৩ ঘন্টা পর যদি পায়খানা হয় তাহলে বুঝবেন আপনার উদ্বিগ্ন হওয়ার কোনো কারণ নেই। কিন্তু এর অন্যথা হলে আপনার দেহে চর্বি জমবে এবং আপনি ধীর হয়ে পড়বেন।

এই সালাদ কীভাবে আপনাকে সাহাজ্য করবে?
এই সালাদ অন্ত্রে জমা হওয়া বর্জ্য চর্বি এবং বিষ পরিষ্কার করবে। এছাড়া পিএইচ লেভেল ঠিক রেখে আপনার অন্ত্রের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে সহায়তা করবে।

সূত্র: বোল্ডস্কাই

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here