অনেক বেশি ইস্ট্রোজেন হরমোন নিঃসরণের কয়েকটি লক্ষণ

0
1519

migranaনারী হরমোন ইস্ট্রোজেন নারীর বৈশিষ্ট্যগুলো ফুটিয়ে তোলার জন্য অত্যাবশ্যকীয়। প্রধানত ডিম্বাশয়ে উৎপন্ন হয় ইস্ট্রোজেন হরমোন। এছাড়াও এড্রেনাল গ্ল্যান্ড ও ফ্যাট সেলেও উৎপন্ন হয় এই হরমোন। বিভিন্ন মানুষের ক্ষেত্রে ইস্ট্রোজেনের মাত্রা বিভিন্ন হয়। কারো কারো ক্ষেত্রে এই হরমোন নিঃসরণের মাত্রা অনেক বেশি থাকে। ব্রেস্ট ক্যান্সার ও জরায়ু ক্যান্সারের একটি কারণ হচ্ছে অতিরিক্ত ইস্ট্রোজেন নিঃসৃত হওয়া। তবে হরমোন রিপ্লেসমেন্ট থেরাপির মাধ্যমে উচ্চ মাত্রার ইস্ট্রোজেনের সমস্যা নিরাময় করা সম্ভব। উচ্চ মাত্রার ইস্ট্রোজেন নিঃসরণের কয়েকটি লক্ষণের বিষয়ে জানবো এই ফিচারে, যাতে আপনি সতর্ক হতে পারেন।

১। ব্লাড প্রেশার বৃদ্ধি পাওয়া

ইস্ট্রোজেন হরমোন নিঃসরণের উচ্চ মাত্রার সাথে নারীর ব্লাড প্রেশার বৃদ্ধি পাওয়ার সম্পর্ক বিদ্যমান।এর কারণ উচ্চ মাত্রার ইস্ট্রোজেন সুপারঅক্সাইড নামের যৌগের উৎপাদন বৃদ্ধি করে। এই যৌগের উৎপাদন বৃদ্ধি ব্লাড প্রেশার বৃদ্ধি করে বলে জানা গেছে।

২। মেজাজের উঠানামা

ইস্ট্রোজেন হরমোন শুধু নারীর পিরিয়ড পরিচালনাই করে না মেজাজের উপর ও প্রভাব ফেলে। যে নারীদের ইস্ট্রোজেনের মাত্রা বেশি থাকে তারা অনেক বিচলিত অনুভব করে এবং তারা বিষণ্ণতা ও উদ্বিগ্নতায়ও ভোগে।

৩। অতিরিক্ত সক্রিয়তা

মেজাজের উঠানামার সাথে সাথে উচ্চ মাত্রার ইস্ট্রোজেন নিঃসৃত হয় যে নারীদের তাদের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত সক্রিয়তার এবং মনোযোগের সমস্যা হওয়ার ও অভিযোগ পাওয়া যায়।

৪। ব্রেস্ট ফুলে যাওয়া

যে কোন ধরণের হরমোনের পরিবর্তনের ফলেই ব্রেস্ট সংবেদনশীল হয়। তাই ব্রেস্ট ফুলে যাওয়ার লক্ষণ দেখা দিলে সতর্ক হতে হবে। এছাড়াও ব্রেস্টে পিন্ড দেখা দিতে পারে।

৫। মাথাব্যথা

ইস্ট্রোজেনের মাত্রার উঠানামার কারণে ঘন ঘন মাথাব্যথা ও মাইগ্রেনের সমস্যা হতে পারে। অন্য কোন বিশেষ কারণ ছাড়া ঘন ঘন মাথা ব্যথা হলে তার কারণ নির্ণয় করার জন্য ডাক্তারের শরণাপন্ন হোন।

৬। অনিয়মিত এবং অনেক বেশি পিরিয়ড হওয়া

আপনার পিরিয়ড যদি স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি হয় এবং অনিয়মিত হয় তাহলে এটি ইস্ট্রোজেনের উচ্চ মাত্রার একটি লক্ষণ। এটি হওয়ার মূল কারণ হচ্ছে ইস্ট্রোজেন জরায়ু প্রাচীরকে পুরো করে ফেলে।

৭। পেট ফাঁপা

পিরিয়ডের সময় বা পিরিয়ডের কয়েকদিন পূর্বে পেট ফাঁপার সমস্যা হওয়া স্বাভাবিক। যদি আপনার ইস্ট্রোজেন নিঃসরণের মাত্রা বেশি হয় তাহলে আপনার পেট ফাঁপার সমস্যা হতে পারে খুব ঘন ঘন।

৮। হাত ও পা ঠান্ডা হওয়া

যে নারীদের ইস্ট্রোজেন হরমোন নিঃসরণের মাত্রা খুব বেশি থাকে তাদের রক্ত সংবহন কম হয় বলে তাদের হাত ও পায়ের পাতা ঠান্ডা অনুভূত হয়।

৯। চুল পড়া

অতিরিক্ত ইস্ট্রোজেন চুল পাতলা করার জন্য দায়ী। উচ্চ মাত্রার ইস্ট্রোজেনের কারণে প্রোজেস্টেরনের লেভেল স্বাভাবিকের চেয়ে কমে যায় বলে চুল পড়ে যায়।

১০। ওজন বৃদ্ধি

ইস্ট্রোজেন হরমোনের অতিরিক্ত নিঃসরণের ফলে আপনার ওজন বৃদ্ধি পেতে পারে এবং এই অতিরিক্ত ওজন কমাতেও সমস্যা হতে পারে।